০৫:০০ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪

ফের ভারতের প্রধানমন্ত্রী হচ্ছেন মোদি, শপথ হতে পারে শনিবার

নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা না পেলেও জোটসঙ্গীদের নিয়ে টানা তৃতীয় মেয়াদে ভারতের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিতে যাচ্ছেন বিজেপি নেতা নরেন্দ্র মোদি।

বুধবার (৫ জুন) এনডিটিভি রাজনৈতিক সূত্রের বরাত দিয়ে জানিয়েছে, আগামী শনিবার এই শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানের আয়োজন হতে পারে।

টাইমস অব ইন্ডিয়া জানিয়েছে, ইতোমধ্যে নিজের পদত্যাগপত্র জমা দিতে এবং মন্ত্রিসভা ভেঙে দেওয়ার সিদ্ধান্ত জানাতে রাষ্ট্রপতি ভবনে পৌঁছে গেছেন মোদি।

সাত ধাপের লোকসভা নির্বাচনে নরেন্দ্র মোদির ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি) ২৪০ আসনে জয়লাভ করেছে। একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেতে দলটির ২৭২ আসন প্রয়োজন ছিল।

তবে দলটি তাদের ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক অ্যালায়েন্স (এনডিএ) জোটের জেতা ৫৩ আসনের ওপর নির্ভর করে টানা তৃতীয় মেয়াদে সরকার গঠন করতে যাচ্ছে বলে সংশ্লিষ্টরা আশা প্রকাশ করেছেন।

অপরদিকে, ভারতের বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার ও অন্ধ্র প্রদেশের তেলেগু দেশম পার্টির (টিডিপি) প্রধান চন্দ্রবাবু নাইডু বিজেপির নেতৃত্বাধীন এনডিএ জোটের বৈঠকে যোগ দেবেন। আজ নয়াদিল্লিতে এই বৈঠক আয়োজনের কথা রয়েছে।

কংগ্রেসের নেতৃত্বাধীন বিরোধী ‘ইন্ডিয়া’ জোটের নেতারাও পরবর্তী করণীয় নির্ধারণে বৈঠকে বসতে যাচ্ছেন।

নির্বাচন কমিশনের হিসাব অনুসারে, কংগ্রেস এককভাবে ৯৯টি আসনে জয়ী হয়েছে। ২০০৯ সালের পর এটি দলটির সবচেয়ে ভালো ফলাফল।

আর দলটির নেতৃত্বাধীন জোট ২৩৪ আসনে জয়ী হয়েছে। তারাও নীতীশ-নাইডুকে কাছে টানার চেষ্টা করতে পারে। নীতীশ-নাইডু যেন এনডিএ জোট থেকে সরে আসেন, তা তাদের বোঝানোর চেষ্টা করা হতে পারে।

বিজনেস বাংলাদেশ/একে

জনপ্রিয়

ফের ভারতের প্রধানমন্ত্রী হচ্ছেন মোদি, শপথ হতে পারে শনিবার

প্রকাশিত : ০৩:৫৫:৪৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ৫ জুন ২০২৪

নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা না পেলেও জোটসঙ্গীদের নিয়ে টানা তৃতীয় মেয়াদে ভারতের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিতে যাচ্ছেন বিজেপি নেতা নরেন্দ্র মোদি।

বুধবার (৫ জুন) এনডিটিভি রাজনৈতিক সূত্রের বরাত দিয়ে জানিয়েছে, আগামী শনিবার এই শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানের আয়োজন হতে পারে।

টাইমস অব ইন্ডিয়া জানিয়েছে, ইতোমধ্যে নিজের পদত্যাগপত্র জমা দিতে এবং মন্ত্রিসভা ভেঙে দেওয়ার সিদ্ধান্ত জানাতে রাষ্ট্রপতি ভবনে পৌঁছে গেছেন মোদি।

সাত ধাপের লোকসভা নির্বাচনে নরেন্দ্র মোদির ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি) ২৪০ আসনে জয়লাভ করেছে। একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেতে দলটির ২৭২ আসন প্রয়োজন ছিল।

তবে দলটি তাদের ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক অ্যালায়েন্স (এনডিএ) জোটের জেতা ৫৩ আসনের ওপর নির্ভর করে টানা তৃতীয় মেয়াদে সরকার গঠন করতে যাচ্ছে বলে সংশ্লিষ্টরা আশা প্রকাশ করেছেন।

অপরদিকে, ভারতের বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার ও অন্ধ্র প্রদেশের তেলেগু দেশম পার্টির (টিডিপি) প্রধান চন্দ্রবাবু নাইডু বিজেপির নেতৃত্বাধীন এনডিএ জোটের বৈঠকে যোগ দেবেন। আজ নয়াদিল্লিতে এই বৈঠক আয়োজনের কথা রয়েছে।

কংগ্রেসের নেতৃত্বাধীন বিরোধী ‘ইন্ডিয়া’ জোটের নেতারাও পরবর্তী করণীয় নির্ধারণে বৈঠকে বসতে যাচ্ছেন।

নির্বাচন কমিশনের হিসাব অনুসারে, কংগ্রেস এককভাবে ৯৯টি আসনে জয়ী হয়েছে। ২০০৯ সালের পর এটি দলটির সবচেয়ে ভালো ফলাফল।

আর দলটির নেতৃত্বাধীন জোট ২৩৪ আসনে জয়ী হয়েছে। তারাও নীতীশ-নাইডুকে কাছে টানার চেষ্টা করতে পারে। নীতীশ-নাইডু যেন এনডিএ জোট থেকে সরে আসেন, তা তাদের বোঝানোর চেষ্টা করা হতে পারে।

বিজনেস বাংলাদেশ/একে