০২:৩০ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪

‘বেশী কথা বললে তো থাপ্পড় খেতেই হয়’

ভারতের সাংসদ এবং অভিনেত্রী কঙ্গনা রণৌত সম্প্রতি এক নিরাপত্তাকর্মীর থাপ্পড় খেয়েছেন। এই ঘটনা ভারতে শুধু নয় বাংলাদেশেও আলোচনা-সমালোচনা চলছে। বাংলাদেশের গুণী অভিনেত্রী বন্যা মির্জাও এই আলোচনায় সামিল হয়েছেন। থাপ্পড়কান্ড নিয়ে নিজের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এক রকম সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন বন্যা মির্জা। বাংলা চলচ্চিত্রে ‘রাবেয়া’ খ্যাত এই অভিনেত্রী তার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে লিখেছেন—

‘বেশী কথা বললে তো থাপ্পড় খেতেই হয়। তা সে যেই হোক, আর অভিনেতা যত বড়ই হোক। এটি একটি এমন থাপ্পড়, যা না দিলে ঠিক হতো না। থাপ্পড় খেলে যা হয়, অন্য কিছুতে তা হয় না। একটি থাপ্পড় এমন সকল অভিনেতার জন্য ঠিক।(অভিনয় পেশা, অভিনেতা ব্যক্তি) যারা এমন এমন করে কথা বলে থাকে।’

তবে বন্যা মির্জা তার পোস্টের কোথাও কঙ্গনার নাম লেখেননি।

উল্লেখ্য, ভারতে লোকসভা নির্বাচনে হিমাচলের মান্ডি আসন থেকে বিজয়ী হয়েছেন বিজেপি প্রার্থী কঙ্গনা রণৌত। ভোটে জয়ের পর দিল্লির উদ্দেশ্যে রওনা দিতে চন্ডীগড় এয়ারপোর্টে পৌঁছান তিনি। সিকিউরিটি চেকিংয়ের সময় কুলবিন্দরের সঙ্গে তর্কে জড়ান কঙ্গনা রণৌত। এ ঘটনার পরে অভিনেত্রীকে থাপ্পড় মারেন কনস্টেবল কুলবিন্দর।

জানা গেছে, কৃষি আইন বাতিলের দাবিতে ভারতীয় কৃষকরা ১৫ মাস আন্দোলন করেছিলেন। ওই আন্দোলন সম্পর্কে কঙ্গনা বলেছিলেন, কৃষকেরা ১০০ রুপির জন্য সেখানে বসেছিল। এদিকে ওই আন্দোলনের একজন কর্মী ছিলেন কুলবিন্দরের মা। তা ছাড়া কুলবিন্দরের ভাই এই আন্দোলনে নেতৃত্ব প্রদানকারীদের একজন।

বিজনেস বাংলাদেশ/একে

ট্যাগ :
জনপ্রিয়

টাঙ্গাইলে ১০ ঘণ্টা পর মহাসড়কে যান চলাচল স্বাভাবিক

‘বেশী কথা বললে তো থাপ্পড় খেতেই হয়’

প্রকাশিত : ১২:৩৯:৫৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ৮ জুন ২০২৪

ভারতের সাংসদ এবং অভিনেত্রী কঙ্গনা রণৌত সম্প্রতি এক নিরাপত্তাকর্মীর থাপ্পড় খেয়েছেন। এই ঘটনা ভারতে শুধু নয় বাংলাদেশেও আলোচনা-সমালোচনা চলছে। বাংলাদেশের গুণী অভিনেত্রী বন্যা মির্জাও এই আলোচনায় সামিল হয়েছেন। থাপ্পড়কান্ড নিয়ে নিজের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এক রকম সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন বন্যা মির্জা। বাংলা চলচ্চিত্রে ‘রাবেয়া’ খ্যাত এই অভিনেত্রী তার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে লিখেছেন—

‘বেশী কথা বললে তো থাপ্পড় খেতেই হয়। তা সে যেই হোক, আর অভিনেতা যত বড়ই হোক। এটি একটি এমন থাপ্পড়, যা না দিলে ঠিক হতো না। থাপ্পড় খেলে যা হয়, অন্য কিছুতে তা হয় না। একটি থাপ্পড় এমন সকল অভিনেতার জন্য ঠিক।(অভিনয় পেশা, অভিনেতা ব্যক্তি) যারা এমন এমন করে কথা বলে থাকে।’

তবে বন্যা মির্জা তার পোস্টের কোথাও কঙ্গনার নাম লেখেননি।

উল্লেখ্য, ভারতে লোকসভা নির্বাচনে হিমাচলের মান্ডি আসন থেকে বিজয়ী হয়েছেন বিজেপি প্রার্থী কঙ্গনা রণৌত। ভোটে জয়ের পর দিল্লির উদ্দেশ্যে রওনা দিতে চন্ডীগড় এয়ারপোর্টে পৌঁছান তিনি। সিকিউরিটি চেকিংয়ের সময় কুলবিন্দরের সঙ্গে তর্কে জড়ান কঙ্গনা রণৌত। এ ঘটনার পরে অভিনেত্রীকে থাপ্পড় মারেন কনস্টেবল কুলবিন্দর।

জানা গেছে, কৃষি আইন বাতিলের দাবিতে ভারতীয় কৃষকরা ১৫ মাস আন্দোলন করেছিলেন। ওই আন্দোলন সম্পর্কে কঙ্গনা বলেছিলেন, কৃষকেরা ১০০ রুপির জন্য সেখানে বসেছিল। এদিকে ওই আন্দোলনের একজন কর্মী ছিলেন কুলবিন্দরের মা। তা ছাড়া কুলবিন্দরের ভাই এই আন্দোলনে নেতৃত্ব প্রদানকারীদের একজন।

বিজনেস বাংলাদেশ/একে