০৬:৪৪ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪

একদিন শীর্ষ ধনী অভিনেতাদের তালিকায় থাকবো: শাকিব খান

একদিন শীর্ষ ধনী অভিনেতাদের তালিকায় আমরাও থাকবো। এক কিংবা দুইয়ে না থাকলেও তো সেরা পাঁচে থাকবো। এভাবে যদি সিনেমা প্রতি ২৫ শতাংশ করে চাই তাহলে কয়েক বছরের মধ্যে সেটা হয়ে যাবে।

আজ ভারতে মুক্তি পাবে তুফান সিনেমাটি। মুক্তির আগে কলকতায় প্রিমিয়ার শো’তে অংশ নিয়ে এমন অভিমত প্রকাশ করলেন শাকিব খান। যদিও হাসির ছলে বলেন এই অভিনেতাস। তবে তাতে আত্মবিশ্বাসের অভাব ছিল না। এসময় তার পাশে ছিলেন নির্মাতা রায়হান রাফী, নায়িকা মিমি চক্রবর্তী।

শাকিব খান বলেন, আন্তর্জাতিকভাবে বাংলা সিনেমার যাত্রা শুরু হয়েছে গেলো বছর ‘প্রিয়তমা’, ‘সুরঙ্গ’র মতো সিনেমা দিয়ে। যা ‘তুফান’-এ এসে ব্যাপকতা বোঝা গেছে। ৬-৭টি দেশে কোনোরকম পোস্টার ছাড়াই শো হাউসফুল গিয়েছে। ইংল্যান্ডের মত দেশে হিন্দিসহ অন্য ছবির সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাংলা সিনেমা সেরা চার-এ চলে এসছে। এটাই প্রমাণ করে আমাদের বাংলা সিনেমা কতটা এগিয়ে যাচ্ছে।

শাকিব বলেন, ত্রিশ থেকে চল্লিশ কোটি বাংলা ভাষার মানুষ পুরো পৃথিবীতে ছড়িয়ে আছে। সংখ্যার দিক থেকে আমরা পিছিয়ে নেই। ভাষাগত দিক থেকে এর চেয়ে অনেক কম জনসংখ্যা নিয়ে দক্ষিণ, মালায়লাম, পাঞ্জাবি ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি আজ অনেক দূর এগিয়ে। সুতরাং আমরা কেনো পিছিয়ে থাকবো। দুই বাংলার দারুণ কোলাব্রেশনই বলে দিচ্ছে আমরা আর পিছিয়ে নেই।

নারীদের আক্রমণ করার সোজা পথ হলো তাকে ‘বেশ্যা’ বলা: স্বস্তিকানারীদের আক্রমণ করার সোজা পথ হলো তাকে ‘বেশ্যা’ বলা: স্বস্তিকা
দেশের এই শীর্ষ পর্যায়ের অভিনয়শিল্পী বলেন, ‘অনেকদিন কলকাতায় বড় কোনো বাংলা সিনেমা হচ্ছে না। এই চর্চাটা হয়ত উঠে গেছে। কিন্তু আমি এটুকু বলতে পারি, বাংলায় তুফান উঠেছে। সেটা ওপার-এপার বাংলা হোক। বিশ্বের বড় বড় সিনেমা ইন্ডাস্ট্রির সঙ্গে আমরাও একদিন পাল্লা দেবো। একদিন বলবো আমাদের বাংলা সিনেমাও পিছিয়ে নেই।’

শাকিব খান বলেন, ‘হাজার কোটি ঘরে যেতে আমাদের খুব বেশি দেরি নেই। একদিন শীর্ষ ধনী অভিনেতাদের তালিকায় আমরাও থাকবো। এক কিংবা দুইয়ে না থাকলেও তো সেরা পাঁচে থাকবো। এভাবে যদি সিনেমা প্রতি ২৫ শতাংশ করে চাই তাহলে কয়েক বছরের মধ্যে সেটা হয়ে যাবে।’

সিনেমার তারতম্য উল্লেখ করে বলেন, এখন বাণিজ্যিক সিনেমা ও ক্ল্যাসিক্যাল সিনেমার মধ্যে খুব বেশি পার্থক্য নেই। এখন মানুষ ভালো একটা সিনেমা দেখতে চায়। যতগুলো বাণিজ্যিক ছবি সুপারহিট করেছে সবগুলোরই একটা চমৎকার গল্প ছিল। সেটার সঙ্গে যত উপাদান লাগে সবই ছিল। তুফানের ক্ষেত্রেও তাই ঘটেছে। কারণ, এটা পরিবার, বন্ধু-বান্ধব নিয়ে দেখার মতো একটা সিনেমা।

বিজনেস বাংলাদেশ/একে

ট্যাগ :

ওমানে শিয়া মসজিদে বন্দুক হামলায় নিহত ৯, দায়স্বীকার আইএসের

একদিন শীর্ষ ধনী অভিনেতাদের তালিকায় থাকবো: শাকিব খান

প্রকাশিত : ১২:২২:১২ অপরাহ্ন, শনিবার, ৬ জুলাই ২০২৪

একদিন শীর্ষ ধনী অভিনেতাদের তালিকায় আমরাও থাকবো। এক কিংবা দুইয়ে না থাকলেও তো সেরা পাঁচে থাকবো। এভাবে যদি সিনেমা প্রতি ২৫ শতাংশ করে চাই তাহলে কয়েক বছরের মধ্যে সেটা হয়ে যাবে।

আজ ভারতে মুক্তি পাবে তুফান সিনেমাটি। মুক্তির আগে কলকতায় প্রিমিয়ার শো’তে অংশ নিয়ে এমন অভিমত প্রকাশ করলেন শাকিব খান। যদিও হাসির ছলে বলেন এই অভিনেতাস। তবে তাতে আত্মবিশ্বাসের অভাব ছিল না। এসময় তার পাশে ছিলেন নির্মাতা রায়হান রাফী, নায়িকা মিমি চক্রবর্তী।

শাকিব খান বলেন, আন্তর্জাতিকভাবে বাংলা সিনেমার যাত্রা শুরু হয়েছে গেলো বছর ‘প্রিয়তমা’, ‘সুরঙ্গ’র মতো সিনেমা দিয়ে। যা ‘তুফান’-এ এসে ব্যাপকতা বোঝা গেছে। ৬-৭টি দেশে কোনোরকম পোস্টার ছাড়াই শো হাউসফুল গিয়েছে। ইংল্যান্ডের মত দেশে হিন্দিসহ অন্য ছবির সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাংলা সিনেমা সেরা চার-এ চলে এসছে। এটাই প্রমাণ করে আমাদের বাংলা সিনেমা কতটা এগিয়ে যাচ্ছে।

শাকিব বলেন, ত্রিশ থেকে চল্লিশ কোটি বাংলা ভাষার মানুষ পুরো পৃথিবীতে ছড়িয়ে আছে। সংখ্যার দিক থেকে আমরা পিছিয়ে নেই। ভাষাগত দিক থেকে এর চেয়ে অনেক কম জনসংখ্যা নিয়ে দক্ষিণ, মালায়লাম, পাঞ্জাবি ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি আজ অনেক দূর এগিয়ে। সুতরাং আমরা কেনো পিছিয়ে থাকবো। দুই বাংলার দারুণ কোলাব্রেশনই বলে দিচ্ছে আমরা আর পিছিয়ে নেই।

নারীদের আক্রমণ করার সোজা পথ হলো তাকে ‘বেশ্যা’ বলা: স্বস্তিকানারীদের আক্রমণ করার সোজা পথ হলো তাকে ‘বেশ্যা’ বলা: স্বস্তিকা
দেশের এই শীর্ষ পর্যায়ের অভিনয়শিল্পী বলেন, ‘অনেকদিন কলকাতায় বড় কোনো বাংলা সিনেমা হচ্ছে না। এই চর্চাটা হয়ত উঠে গেছে। কিন্তু আমি এটুকু বলতে পারি, বাংলায় তুফান উঠেছে। সেটা ওপার-এপার বাংলা হোক। বিশ্বের বড় বড় সিনেমা ইন্ডাস্ট্রির সঙ্গে আমরাও একদিন পাল্লা দেবো। একদিন বলবো আমাদের বাংলা সিনেমাও পিছিয়ে নেই।’

শাকিব খান বলেন, ‘হাজার কোটি ঘরে যেতে আমাদের খুব বেশি দেরি নেই। একদিন শীর্ষ ধনী অভিনেতাদের তালিকায় আমরাও থাকবো। এক কিংবা দুইয়ে না থাকলেও তো সেরা পাঁচে থাকবো। এভাবে যদি সিনেমা প্রতি ২৫ শতাংশ করে চাই তাহলে কয়েক বছরের মধ্যে সেটা হয়ে যাবে।’

সিনেমার তারতম্য উল্লেখ করে বলেন, এখন বাণিজ্যিক সিনেমা ও ক্ল্যাসিক্যাল সিনেমার মধ্যে খুব বেশি পার্থক্য নেই। এখন মানুষ ভালো একটা সিনেমা দেখতে চায়। যতগুলো বাণিজ্যিক ছবি সুপারহিট করেছে সবগুলোরই একটা চমৎকার গল্প ছিল। সেটার সঙ্গে যত উপাদান লাগে সবই ছিল। তুফানের ক্ষেত্রেও তাই ঘটেছে। কারণ, এটা পরিবার, বন্ধু-বান্ধব নিয়ে দেখার মতো একটা সিনেমা।

বিজনেস বাংলাদেশ/একে