০৭:৩৯ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪

নেইমারের কাছে হেরে গেলেন মেসি

বার্সেলোনায় তাদের বন্ধুত্বটা ছিল একেবারে আমে-দুধে মেশানো। এখন আলাদা ক্লাবে খেললেও লিওনেল মেসি আর নেইমারের মধ্যকার সৌহার্দ্য কমেনি এতটুকু। তবে একটা জায়গায় মেসির সঙ্গে ঠিকই লড়াইয়ে নেমেছেন নেইমার। ব্রাজিলিয়ান সুপারস্টার সেখানে আবার হারিয়েও দিয়েছেন আর্জেন্টাইন ফুটবল জাদুকরকে।
কি সে লড়াই? লড়াইটা হলো ইউরোপের সেরা ড্রিবলারের। পরিসংখ্যান বলছে, সেরা পাঁচ ইউরোপিয়ান লিগে সবচেয়ে এখন সবচেয়ে সফল ড্রিবলার নেইমার। মেসি খুব পিছিয়ে না থাকলেও সাফল্যের হারে বার্সেলোনার সাবেক সতীর্থের কাছে হেরে গেছেন।
ইউরোপিয়ান লিগের লিগ ওয়ানে প্যারিস সেন্ট জার্মেইয়ের (পিএসজি) হয়ে সবচেয়ে বেশি ৭২ বার ড্রিবলিং করেছেন নেইমার। এর মধ্যে তিনি ৪৬ বার সফলভাবে কাটিয়েছেন প্রতিপক্ষ খেলোয়াড়কে।
ব্রাজিলিয়ান তারকাকে আটকাতে ৩০ বার ফাউল করেছেন প্রতিপক্ষ খেলোয়াড়রা, তার সমান ফাউলের শিকার হয়েছেন কেবল বোর্দোর ম্যালকম।
ফ্রেঞ্চ চ্যাম্পিয়নশিপে নেইমার এখন পর্যন্ত ছয়টি গোল পেয়েছেন, অ্যাসিস্ট করেছেন ৫টি। ড্রিবলিংয়ের সঙ্গে মিলিয়ে খেলোয়াড় পরাস্ত করায় তার সাফল্যের হার শতকরা ৬৪ ভাগ।
মেসি অবশ্য খুব বেশি পিছিয়ে নেই। বার্সোলোনার হয়ে এই সময়ে মেসি করেছেন ১১টি গোল, ২টি আছে অ্যাসিস্ট। প্রতিপক্ষ খেলোয়াড়ের সঙ্গে তিনি ড্রিবলিং করেছেন মোট ৬৮ বার। এর মধ্যে আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড সফল হয়েছেন ৪২ বার। সবমিলিয়ে তার সাফল্যের হার শতকরা ৬২ ভাগ।
সাফল্যের এই হারে সবচেয়ে এগিয়ে আছেন অবশ্য আরেকজন, লিয়নের নাবিল ফেকির।
৬ গোল আর ৩ অ্যাসিস্টের সঙ্গে ৫০ ড্রিবলিংয়ে ৩৫ বার সফল হয়েছেন তিনি। সাফল্যের হার শতকরা ৭০ ভাগ।

ট্যাগ :
জনপ্রিয়

নেইমারের কাছে হেরে গেলেন মেসি

প্রকাশিত : ০১:৪১:৪৮ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৫ অক্টোবর ২০১৭

বার্সেলোনায় তাদের বন্ধুত্বটা ছিল একেবারে আমে-দুধে মেশানো। এখন আলাদা ক্লাবে খেললেও লিওনেল মেসি আর নেইমারের মধ্যকার সৌহার্দ্য কমেনি এতটুকু। তবে একটা জায়গায় মেসির সঙ্গে ঠিকই লড়াইয়ে নেমেছেন নেইমার। ব্রাজিলিয়ান সুপারস্টার সেখানে আবার হারিয়েও দিয়েছেন আর্জেন্টাইন ফুটবল জাদুকরকে।
কি সে লড়াই? লড়াইটা হলো ইউরোপের সেরা ড্রিবলারের। পরিসংখ্যান বলছে, সেরা পাঁচ ইউরোপিয়ান লিগে সবচেয়ে এখন সবচেয়ে সফল ড্রিবলার নেইমার। মেসি খুব পিছিয়ে না থাকলেও সাফল্যের হারে বার্সেলোনার সাবেক সতীর্থের কাছে হেরে গেছেন।
ইউরোপিয়ান লিগের লিগ ওয়ানে প্যারিস সেন্ট জার্মেইয়ের (পিএসজি) হয়ে সবচেয়ে বেশি ৭২ বার ড্রিবলিং করেছেন নেইমার। এর মধ্যে তিনি ৪৬ বার সফলভাবে কাটিয়েছেন প্রতিপক্ষ খেলোয়াড়কে।
ব্রাজিলিয়ান তারকাকে আটকাতে ৩০ বার ফাউল করেছেন প্রতিপক্ষ খেলোয়াড়রা, তার সমান ফাউলের শিকার হয়েছেন কেবল বোর্দোর ম্যালকম।
ফ্রেঞ্চ চ্যাম্পিয়নশিপে নেইমার এখন পর্যন্ত ছয়টি গোল পেয়েছেন, অ্যাসিস্ট করেছেন ৫টি। ড্রিবলিংয়ের সঙ্গে মিলিয়ে খেলোয়াড় পরাস্ত করায় তার সাফল্যের হার শতকরা ৬৪ ভাগ।
মেসি অবশ্য খুব বেশি পিছিয়ে নেই। বার্সোলোনার হয়ে এই সময়ে মেসি করেছেন ১১টি গোল, ২টি আছে অ্যাসিস্ট। প্রতিপক্ষ খেলোয়াড়ের সঙ্গে তিনি ড্রিবলিং করেছেন মোট ৬৮ বার। এর মধ্যে আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড সফল হয়েছেন ৪২ বার। সবমিলিয়ে তার সাফল্যের হার শতকরা ৬২ ভাগ।
সাফল্যের এই হারে সবচেয়ে এগিয়ে আছেন অবশ্য আরেকজন, লিয়নের নাবিল ফেকির।
৬ গোল আর ৩ অ্যাসিস্টের সঙ্গে ৫০ ড্রিবলিংয়ে ৩৫ বার সফল হয়েছেন তিনি। সাফল্যের হার শতকরা ৭০ ভাগ।