ঢাকা সকাল ১১:০২, সোমবার, ২৮শে নভেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১৩ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ডিসেম্বরেই পদ্মা সেতুর আরও দুটি স্প্যান

৩৭ ও ৩৮ নম্বর খুঁটির ওপর প্রথম স্প্যান বসানোর মধ্য দিয়ে গত ৩০ সেপ্টেম্বর দৃশ্যমান হয়েছে পদ্মা সেতু। ডিসেম্বরের মধ্যে বসানোর লক্ষ্যে দ্রুত গতিতে কাজ চলছে। সেতুর জাজিরা প্রান্তের ৩৮, ৩৯ ও ৪০ নম্বর খুঁটির মাঝে বসবে ১৫০ মিটার দৈর্ঘ্যের প্রতিটি স্প্যান।

সেতু বিভাগ সূত্র বলেছে, পদ্মা সেতুতে মোট ৪১টি স্প্যান বসানো হবে। চীনে তৈরি স্প্যানের অংশগুলো সমুদ্রপথে বাংলাদেশে আনা হচ্ছে। সেখান থেকে মাওয়ার কুমারভোগ কন্সট্রাকশন ইয়ার্ডে এনে তা পদ্মায় খুঁটির ওপর বসানোর জন্য প্রস্তুত করা হয়। বর্তমানে ওই স্থানে দুটি স্প্যানের রং করার কাজ চলছে। রঙের কাজ শেষ হলে ভাসমান ক্রেন দিয়ে এগুলো মাওয়া থেকে জাজিরা প্রান্তে নেওয়া হবে। পদ্মা সেতুর জাজিরা প্রান্তের ৩৮, ৩৯ ও ৪০ নম্বর খুঁটিতে বসানো হবে স্প্যান দুটি। এ জন্য ৩৯ ও ৪০ নম্বর খুঁটিতে ঢালাইয়ের কাজ চলছে।

সেতু বিভাগ সূত্র আরও বলেছে, পদ্মা সেতুতে মোট ৪২টি খুঁটি বসানো হবে। এক খুঁটি থেকে আরেক খুঁটির দূরত্ব ১৫০ মিটার। এই দূরত্বের লম্বা ইস্পাতের কাঠামো বা স্প্যান জোড়া দিয়েই সেতু নির্মিত হবে। পদ্মা সেতুর প্রতিটি খুঁটির নিচে ছয়টি করে পাইল বসানো হচ্ছে।

গত শুক্রবার পদ্মা সেতুর জাজিরা প্রান্তের নাওডোবা এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, নির্মাণাধীন সেতুর ৩৯ ও ৪০ নম্বর খুঁটিতে কাজ করছেন শ্রমিক ও প্রকৌশলীরা। খুঁটি দুটিতে চূড়ান্ত ঢালাইয়ের কাজ চলছে।

পদ্মা সেতুর প্রকল্প পরিচালক শফিকুল ইসলাম মুঠোফোনে প্রথম আলোকে বলেন, প্রথম স্প্যান বসানোর মধ্য দিয়ে পদ্মা সেতু দৃশ্যমান হয়েছে। দ্রুততম সময়ের মধ্যে সেতুর কাজ শেষ হবে।

এ বিভাগের আরও সংবাদ