১০:৫১ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪

চোটের কারণে ইউএস ওপেন থেকে নাম তুলে নিলেন নাদাল

রাফায়েল নাদাল

ইউএস ওপেন থেকে চোটের কারণে নাম তুলে নিলেন রাফায়েল নাদাল। বাঁ পায়ে চোটের কারণে নাম প্রত্যাহার করতে বাধ্য হলেন স্পেনের এই টেনিস তারকা।

শুক্রবার টুইটারে নাদাল লেখেন, আমি আপনাদের জানাতে চাই, দুর্ভাগ্যজনকভাবে আমাকে ২০২১ মৌসুম শেষ করতে হচ্ছে। বিগত বেশকিছু বছর ধরেই পায়ের চোটের কারণে সমস্যা হচ্ছে। তবে কথা দিচ্ছি আমি ফিরে আসবই। তার জন্য অনেক খাটতে হবে আমায়। আমি খাটতে প্রস্তুত। ধন্যবাদ এই কঠিন সময়ে আমার পাশে থাকার জন্য।

তবে এখনই অবসরের কথা ভাবছেন না নাদাল। তিনি লেখেন, আরও কিছু বছর খেলতে চাই। তাই দ্রুত এই সমস্যা থেকে মুক্তি চাই। সেই কারণে যা যা দরকার সব কিছুই করতে চাই এবং সেরা ছন্দে ফিরতে চাই।

হাঁটুর অস্ত্রোপচারের কারণে আগেই ইউএস ওপেন থেকে নিজের নাম প্রত্যাহার করতে বাধ্য হয়েছিলেন রজার ফেদেরার। এবার সরলেন নাদালও। তবে নাদাল ও ফেদেরার না থাকায় আরও সুবিধা হয়ে গেল নোভাক জোকোভিচের। ইউএস ওপেন জিতলে ২১টি গ্র্যান্ড স্ল্যাম জিতে তাদের দুনজকে টপকে যেতে পারবেন তিনি।

বিজনেস বাংলাদেশ/ এস শিকদার

চারদিকে কি হচ্ছে,সেইদিকে নজর না রেখে নিজের লক্ষ্যে পৌঁছাতে হবে

চোটের কারণে ইউএস ওপেন থেকে নাম তুলে নিলেন নাদাল

প্রকাশিত : ০১:২২:১৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ২১ অগাস্ট ২০২১

ইউএস ওপেন থেকে চোটের কারণে নাম তুলে নিলেন রাফায়েল নাদাল। বাঁ পায়ে চোটের কারণে নাম প্রত্যাহার করতে বাধ্য হলেন স্পেনের এই টেনিস তারকা।

শুক্রবার টুইটারে নাদাল লেখেন, আমি আপনাদের জানাতে চাই, দুর্ভাগ্যজনকভাবে আমাকে ২০২১ মৌসুম শেষ করতে হচ্ছে। বিগত বেশকিছু বছর ধরেই পায়ের চোটের কারণে সমস্যা হচ্ছে। তবে কথা দিচ্ছি আমি ফিরে আসবই। তার জন্য অনেক খাটতে হবে আমায়। আমি খাটতে প্রস্তুত। ধন্যবাদ এই কঠিন সময়ে আমার পাশে থাকার জন্য।

তবে এখনই অবসরের কথা ভাবছেন না নাদাল। তিনি লেখেন, আরও কিছু বছর খেলতে চাই। তাই দ্রুত এই সমস্যা থেকে মুক্তি চাই। সেই কারণে যা যা দরকার সব কিছুই করতে চাই এবং সেরা ছন্দে ফিরতে চাই।

হাঁটুর অস্ত্রোপচারের কারণে আগেই ইউএস ওপেন থেকে নিজের নাম প্রত্যাহার করতে বাধ্য হয়েছিলেন রজার ফেদেরার। এবার সরলেন নাদালও। তবে নাদাল ও ফেদেরার না থাকায় আরও সুবিধা হয়ে গেল নোভাক জোকোভিচের। ইউএস ওপেন জিতলে ২১টি গ্র্যান্ড স্ল্যাম জিতে তাদের দুনজকে টপকে যেতে পারবেন তিনি।

বিজনেস বাংলাদেশ/ এস শিকদার