ঢাকা দুপুর ১:০৬, বুধবার, ২৭শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১১ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

জননেত্রী শেখ হাসিনার বিকল্প শেখ হাসিনা: তথ্যমন্ত্রী

তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ বলেছেন, ‘বাংলাদেশে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কোনো বিকল্প নেই। জননেত্রী শেখ হাসিনার বিকল্প শেখ হাসিনা। কামনা করছি, তিনি শততম জন্মদিনেও এ পৃথিবীতে থাকবেন।’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বের গুণাবলি, সব প্রতিকূলতাকে পাশ কাটিয়ে এগিয়ে যাওয়া, করোনায় মানুষের পাশে থাকাসহ বিভিন্ন দিক উল্লেখ করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বের ফলে খাদ্য উদ্বৃত্ত দেশের তালিকায় আছে বাংলাদেশ। দেশে দারিদ্র্য কমে অর্ধেকে নেমেছে। করোনায় গত দেড় বছরে একজন মানুষকেও না খেয়ে মরতে হয়নি। গণটিকাসহ বিভিন্ন কার্যক্রমে দেশে করোনাও অনেকটা নিয়ন্ত্রণের মধ্যে চলে এসেছে। করোনার মধ্যেও প্রধানমন্ত্রী গৃহহীনদের ঘর করে দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন, প্রায় দেড় লাখ মানুষকে ঘর করে দেওয়া হয়েছে। আর এসব কারণে বিশ্বনেতৃত্বও বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর প্রশংসা করছেন।

আজ মঙ্গলবার জাতীয় প্রেসক্লাবের তফাজ্জল হোসেন মানিক মিয়া হলে প্রগতিশীল সাংবাদিক মঞ্চ আয়োজিত ‘উন্নয়নের নেত্রী শেখ হাসিনা’ শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তথ্যমন্ত্রী এসব কথা বলেন। প্রধানমন্ত্রীর ৭৫তম জন্মদিনে শ্রদ্ধাঞ্জলি জানানোর জন্য এ আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।

আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন জাতীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি ফরিদা ইয়াসমিন। তিনি বলেন, ‘শেখ হাসিনা আমাদের প্রধানমন্ত্রী। প্রধানমন্ত্রী হলেও তিনি আমাদের আপা।’

আলোচনায় সাবেক বিচারপতি শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিকও বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কোনো বিকল্প নেই। ১৯৭৫–এর হত্যাকাণ্ডে অলৌকিকভাবে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের দুই কন্যা শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানা বেঁচে যান। শেখ হাসিনা আছেন বলেই বাংলাদেশ বাংলাদেশই আছে।

আলোচনায় সাংবাদিক নেতা ও সাংবাদিকদের মধ্যে ইকবাল সোবহান চৌধুরী, কাশেম হুমায়ুন, এনামুল হক চৌধুরী, মনজুরুল আহসান বুলবুল, সুভাষ চন্দ্র বাদল, মুন্নী সাহা প্রমুখ অংশ নেন। তাঁরা পেশাগত দায়িত্ব পালনের সময় শেখ হাসিনার সঙ্গে থাকা বিভিন্ন অভিজ্ঞতার স্মৃতিচারণা করেন। একই সঙ্গে অসাম্প্রদায়িক দেশ গঠনের অঙ্গীকার করেন তাঁরা।

বিজনেস বাংলাদেশ/বিএইচ

এ বিভাগের আরও সংবাদ