ঢাকা ভোর ৫:২১, বৃহস্পতিবার, ১৯শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

আখাউড়া উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের পদত্যাগের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন

আখাউড়া উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবুল কাশেম ভূঁইয়ার পদত্যাগের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছে আখাউড়া উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান, ৫ ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ও এক পৌরসভার মেয়র, সহ সকল সদস্য ও সাধারণ সদস্য সদস্য বৃন্দ।

শুক্রবার (১৩ মে) দুপুরে ৩ নং আখাউড়া মোগড়া ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলন করে এ দাবি জানানো হয়।

আখাউড়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল কাশেম ভূঁইয়ার বিরুদ্ধে দুর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগে তীব্র নিন্দা এবং অবিলম্বে পদত্যাগ দাবি করেন তারা।

এসময় বক্তারা বলেন, আবুল কাশেম ভূঁইয়া পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার পরে কোন এক জন চেয়ারম্যান সৌজন্যমূলক চা খাওয়ার ভাগ্য হয়নি, এছাড়াও জাইকা সংস্থার বাজেট ছিল ৪০ লক্ষ্য টাকা যা তিনি একক ক্ষমতাবলে একক সিদ্ধান্ত মোতাবেক কাউকে না জানিয়ে পরামর্শ না করে নিজস্ব এলাকায় খরচ করেছেন, ইউনিয়ন পরিষদের যে বাজেট গুলো এসেছে কোন পরিষদ সে টাকা পাইনি।

পৌর মেয়র ও আখাউড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তাকজিল খলিফা কাজল বলেন উপজেলা চেয়ারম্যান উপজেলায় সমবন্টন করে কাজ করেননি(পিআইসি) করে টাকা তুলে সমস্ত কাজ ছোট কুঁড়ি পাইকা তার নিজ গ্রামে করেছেন। তিন বছরে ২০ টি রাস্তা এক গ্রামে হয় কীভাবে।

উনার দুর্নীতি-অনিয়মের কথা মাননীয় মন্ত্রী মহোদয় কে জানানোর পর মাননীয় মন্ত্রী মহোদয় এক বছর পূর্বে মুঠোফোনে তাকে শাসিয়েছিলেন উনাকে শুধরানোর সুযোগ দিয়েছিলেন, এক বছর এই কাজ বারবার করেছেন, না পারতে আমরা উপজেলা চেয়ারম্যানের পদত্যাগের দাবি করে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব কে লিখিত ভাবে দেওয়া হয়েছে পাঁচ ইউনিয়নের ৫৪ জন সদস্য এ দাবিতে একমত হয়েছেন, যে প্রজেক্টগুলো তিনি বাস্তবায়ন করেছেন দুদক এর মাধ্যমে তদন্তের ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানাচ্ছি পৌর মেয়র হিসেবে নয় উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক হিসেবেও সরকারের উন্নয়নমূলক প্রকল্প দেখার দায়িত্ব রয়েছে সে হিসেবে অবিলম্বে তার পদত্যাগ দাবি করছি।

এ বিষয়ে আখাউড়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল কাশেম ভূঁইয়া জানান এগুলা যারা বলছে আমি দুর্নীতি করেছি তাদের প্রমাণ করতে হবে, আমার স্ট্যাটাসে বহুবার বলেছি আমার কোন দুর্নীতি থাকলে যথাযথ কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে তদন্ত করে দোষী সাব্যস্ত হলে যে শাস্তি দিবে আমি মাথা পেতে নেব, যারা অপপ্রচার করছে আমার সুনাম নষ্ট করেছে যদি দুর্নীতির প্রমাণ না হয় তাদের শাস্তি কি হবে তাদের বিচার টা কে করবে,আমি এটা জনগণের কাছে চাই।
বিজনেস বাংলাদেশ/বিএইচ

এ বিভাগের আরও সংবাদ