০২:৩৫ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪

অবশেষে মুখ খুললেন জয়া

  • বিনোদন ডেস্ক
  • প্রকাশিত : ০৮:৩৩:৪২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
  • 32

২০২০-২১ অর্থবছরে সিনেমা নির্মাণের জন্য তিনি ৬০ লাখ টাকার সরকারি অনুদান পেয়েছিলেন অভিনেত্রী জয়া আহসান। সিনেমার ছিল নাম ‘রইদ’। জয়ার প্রযোজনায় এটি নির্মাণের কথা ছিল ‘হাওয়া’ খ্যাত নির্মাতা মেজবাউর রহমান সুমনের। তবে সম্প্রতি অনুদানের টাকা ফেরত দিয়েছেন জয়া আহসান।

বিষয়টি নিয়ে ইতিমধ্যেই গণমাধ্যমে কথা বলেছেন লেখক ও পরিচালক মেজবাউর রহমান সুমন। এবার মুখ খুললেন জয়া আহসান। তার কথা, ‘যে কারণেই হোক নির্মাণ প্রক্রিয়া বিলম্ব হচ্ছে। সুমনকে বারবার তাগাদা দিয়েছি। এদিকে অনুদানের অর্থ নিয়ে সিনেমা নির্মাণ না করাটা আমার কাছে অশোভন মনে হয়েছে, তাই টাকা ফেরত দিয়েছি।’

অনুদানের টাকা ফেরত দেওয়া প্রসঙ্গে ইতিমধ্যেই সুমন বলেছেন, ‘কাস্টিং ও লোকেশন ঠিক করা, আমার নিজের ব্যস্ততা- সব মিলিয়ে কাজটি শুরু করতে দেরি হচ্ছে। আমরা আরও দুই বছর আগে অনুদান পেয়েছি। এত দিনে সিনেমাটি জমা দেওয়ার সময়ও শেষ হয়ে গেছে। যথাসময়ে সিনেমা নির্মাণ ও জমা দিতে না পারায় আগেও সমালোচিত হয়েছেন অনেকেই। জয়া কিংবা আমি সেই সমালোচনার মুখে পড়তে চাই না। তাই অনুদানের টাকা ফেরত দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে। পরিস্থিতি বিবেচনা করে দেখেছি, সিনেমাটি শেষ করতে আমাদের আরও সময় লাগতে পারে।’

জানা গেছে, জয়া সরে দাঁড়ালেও পর্দায় আসবে ‘রইদ’। আর এটি নির্মিত হবে সুমনের প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান ফেসকার্ড থেকে। কিছুটা দেরি হলেও ‘রইদ’ সিনেমার শুটিং শেষ করবেন বলে জানান ‘হাওয়া’র এই নির্মাতা।

বিজনেস বাংলাদেশ/বিএইচ

জনপ্রিয়

ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে কর্মসংস্থান ব্যাংকের নবনিযুক্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালকের শ্রদ্ধা জ্ঞাপন

অবশেষে মুখ খুললেন জয়া

প্রকাশিত : ০৮:৩৩:৪২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

২০২০-২১ অর্থবছরে সিনেমা নির্মাণের জন্য তিনি ৬০ লাখ টাকার সরকারি অনুদান পেয়েছিলেন অভিনেত্রী জয়া আহসান। সিনেমার ছিল নাম ‘রইদ’। জয়ার প্রযোজনায় এটি নির্মাণের কথা ছিল ‘হাওয়া’ খ্যাত নির্মাতা মেজবাউর রহমান সুমনের। তবে সম্প্রতি অনুদানের টাকা ফেরত দিয়েছেন জয়া আহসান।

বিষয়টি নিয়ে ইতিমধ্যেই গণমাধ্যমে কথা বলেছেন লেখক ও পরিচালক মেজবাউর রহমান সুমন। এবার মুখ খুললেন জয়া আহসান। তার কথা, ‘যে কারণেই হোক নির্মাণ প্রক্রিয়া বিলম্ব হচ্ছে। সুমনকে বারবার তাগাদা দিয়েছি। এদিকে অনুদানের অর্থ নিয়ে সিনেমা নির্মাণ না করাটা আমার কাছে অশোভন মনে হয়েছে, তাই টাকা ফেরত দিয়েছি।’

অনুদানের টাকা ফেরত দেওয়া প্রসঙ্গে ইতিমধ্যেই সুমন বলেছেন, ‘কাস্টিং ও লোকেশন ঠিক করা, আমার নিজের ব্যস্ততা- সব মিলিয়ে কাজটি শুরু করতে দেরি হচ্ছে। আমরা আরও দুই বছর আগে অনুদান পেয়েছি। এত দিনে সিনেমাটি জমা দেওয়ার সময়ও শেষ হয়ে গেছে। যথাসময়ে সিনেমা নির্মাণ ও জমা দিতে না পারায় আগেও সমালোচিত হয়েছেন অনেকেই। জয়া কিংবা আমি সেই সমালোচনার মুখে পড়তে চাই না। তাই অনুদানের টাকা ফেরত দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে। পরিস্থিতি বিবেচনা করে দেখেছি, সিনেমাটি শেষ করতে আমাদের আরও সময় লাগতে পারে।’

জানা গেছে, জয়া সরে দাঁড়ালেও পর্দায় আসবে ‘রইদ’। আর এটি নির্মিত হবে সুমনের প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান ফেসকার্ড থেকে। কিছুটা দেরি হলেও ‘রইদ’ সিনেমার শুটিং শেষ করবেন বলে জানান ‘হাওয়া’র এই নির্মাতা।

বিজনেস বাংলাদেশ/বিএইচ