০৮:১৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪

রাউজান পাহাড়তলী বাজারে আণ্ডা করিমের নেতৃত্বে রেস্টুরেন্টে হামলা, লুট

চট্টগ্রামের রাউজানে একটি রেস্টুরেন্টে হামলা চালিয়েছে সন্ত্রাসীরা। লুট করে নিয়ে গেছে নগদ টাকাসহ মূল্যবান জিনিসপত্র। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার পাহাড়তলী ইউনিয়নের চৌমুহনী বাজারের কার্বন রেস্টুরেন্টে। সোমবার (১৫ এপ্রিল) রাত সাড়ে ৮টার দিকে এ হামলার ঘটনা ঘটে। এতে প্রতিষ্ঠানটির পরিচালক মহিউদ্দিনকেও মারধর করা হয়েছে। এ ঘটনায় মহিউদ্দিন বাদী হয়ে সোমবার রাতে রাউজান থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযোগে মো. করিম ওরফে আণ্ডা করিম (৪০), মো. আইযুব (৩২) ও মো. শাহরুক ইমতিয়াজ জসিমকে (৩২) আসামি করা হয়েছে। অভিযোগে হামলায় আড়াই লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি এবং রেস্টুরেন্টের ক্যাশ বাক্স ভেঙে ৩৫ হাজার টাকা লুট করার অভিযোগ আনা হয়।

মহিউদ্দিন জানান, অতর্কিতভাবে আমার রেস্টুরেন্টে হামলার ঘটনা ঘটে। হামলার নেতৃত্ব দেন করিম ওরফে আন্ডা করিম নামে স্থানীয় এক কিশোর গ্যাং এর পৃষ্ঠপোষক। হামলা করে যাওয়ার সময় সন্ত্রাসীরা রেস্টুরেন্টের একটি অংশে তালা লাগিয়ে চাবি নিয়ে গেছে।

স্থানীয়রা জানান, রাউজান পাহাড়লতী বাজারে তিন শিক্ষিত যুবক চাকরির পেছনে না ছুটে চার বছর আগে এ রেস্টুরেন্ট করেছেন। এতে পুঁজি দিয়েছেন পরিবার থেকে। এক নিমিষেই যেন সব স্বপ্ন শেষ করে দিল হামলাকারীরা।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, হামলায় ‘কার্বন রেস্টুরেন্ট’ এর ভেতরে ব্যাপক ভাংচুরের চিহ্ন দেখা যায়। রেস্টুরেন্টের মেঝেতে ছড়িয়ে ছিটিয়ে পড়ে ছিল চেয়ার-টেবিল। নিচে পড়েছিল ভাঙ্গা কাপ-পিনিচ। সামনে ঝুলছে হামলায় ক্ষতিগ্রস্ত শাটার।

বিষয়টি জেলা পুলিশ সুপার এবং রাউজান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে অবহিত করা হয়েছে। তারা এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন।

 

ট্যাগ :

রাউজান পাহাড়তলী বাজারে আণ্ডা করিমের নেতৃত্বে রেস্টুরেন্টে হামলা, লুট

প্রকাশিত : ০৭:৪৪:২৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪

চট্টগ্রামের রাউজানে একটি রেস্টুরেন্টে হামলা চালিয়েছে সন্ত্রাসীরা। লুট করে নিয়ে গেছে নগদ টাকাসহ মূল্যবান জিনিসপত্র। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার পাহাড়তলী ইউনিয়নের চৌমুহনী বাজারের কার্বন রেস্টুরেন্টে। সোমবার (১৫ এপ্রিল) রাত সাড়ে ৮টার দিকে এ হামলার ঘটনা ঘটে। এতে প্রতিষ্ঠানটির পরিচালক মহিউদ্দিনকেও মারধর করা হয়েছে। এ ঘটনায় মহিউদ্দিন বাদী হয়ে সোমবার রাতে রাউজান থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযোগে মো. করিম ওরফে আণ্ডা করিম (৪০), মো. আইযুব (৩২) ও মো. শাহরুক ইমতিয়াজ জসিমকে (৩২) আসামি করা হয়েছে। অভিযোগে হামলায় আড়াই লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি এবং রেস্টুরেন্টের ক্যাশ বাক্স ভেঙে ৩৫ হাজার টাকা লুট করার অভিযোগ আনা হয়।

মহিউদ্দিন জানান, অতর্কিতভাবে আমার রেস্টুরেন্টে হামলার ঘটনা ঘটে। হামলার নেতৃত্ব দেন করিম ওরফে আন্ডা করিম নামে স্থানীয় এক কিশোর গ্যাং এর পৃষ্ঠপোষক। হামলা করে যাওয়ার সময় সন্ত্রাসীরা রেস্টুরেন্টের একটি অংশে তালা লাগিয়ে চাবি নিয়ে গেছে।

স্থানীয়রা জানান, রাউজান পাহাড়লতী বাজারে তিন শিক্ষিত যুবক চাকরির পেছনে না ছুটে চার বছর আগে এ রেস্টুরেন্ট করেছেন। এতে পুঁজি দিয়েছেন পরিবার থেকে। এক নিমিষেই যেন সব স্বপ্ন শেষ করে দিল হামলাকারীরা।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, হামলায় ‘কার্বন রেস্টুরেন্ট’ এর ভেতরে ব্যাপক ভাংচুরের চিহ্ন দেখা যায়। রেস্টুরেন্টের মেঝেতে ছড়িয়ে ছিটিয়ে পড়ে ছিল চেয়ার-টেবিল। নিচে পড়েছিল ভাঙ্গা কাপ-পিনিচ। সামনে ঝুলছে হামলায় ক্ষতিগ্রস্ত শাটার।

বিষয়টি জেলা পুলিশ সুপার এবং রাউজান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে অবহিত করা হয়েছে। তারা এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন।