০২:১১ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪

শিলাস্তির সর্বোচ্চ শাস্তি চাইলেন তার দাদা

ঝিনাইদহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজীম আনার হত্যাকাণ্ডে জড়িত সন্দেহে গ্রেপ্তার হয়ে পুলিশের রিমান্ডে রয়েছেন শিলাস্তি রহমান নামের এক তরুণী। অভিযোগ প্রমাণিত হলে শিলাস্তির দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাইলেন তার দাদা বীর মুক্তিযোদ্ধা সেলিম মিয়া।

শনিবার (২৫ মে) শিলাস্তি রহমানের বাড়ি টাঙ্গাইলের নাগরপুর উপজেলার ধবুরিয়া ইউনিয়নের পাইসানা গ্রামে গেলে সংবাদকর্মীদের এ কথা বলেন শিলাস্তির মুক্তিযোদ্ধা দাদা।

সেলিম মিয়া জানান, শিলাস্তি তার বড় ভাইয়ের ছেলের (ভাতিজা) সন্তান শিলাস্তি। সম্পর্কে নাতনি। দুই বোনের মধ্যে শিলাস্তি বড়। তার বাবা আরিফুর রহমান পাট ব্যবসায়ী।

শিলাস্তির মুক্তিযোদ্ধা দাদা আরও বলেন, ছোট বেলা থেকেই শিলাস্তিরা ঢাকার উত্তরায় বসবাস করে। মাঝে মধ্যে গ্রামের বাড়িতে আসে। তবে দুই একদিন পর আবার চলে যেত।

এমপি আনার হত্যায় তার নাতনির সম্পৃক্ততা নিয়ে সেলিম মিয়া বেশি কিছু জানেন না। পত্রপত্রিকা পড়ে তিনি সেই হত্যায় জড়িত থাকার অভিযোগে তার নাতনির গ্রেপ্তার ও রিমান্ডে নেয়ার তথ্য জেনেছেন।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে সেলিম মিয়া বলেন, “আদালতের বিচারে যদি হত্যাকাণ্ডে শিলাস্তির জড়িত থাকার প্রমাণ মেলে, তবে তার সর্বোচ্চ শাস্তি হোক সেটাই চাই।”

উল্লেখ্য, পাইসানা গ্রামে শিলাস্তিদের দুইটি বাড়ি পাশাপাশি। একটি টিনের আর এর পাশেই নির্মাণ করা হয়েছে দোতলা বিল্ডিং। তবে সেই বাড়িতে নেই কোনো আসবাবপত্র।

বিজনেস বাংলাদেশ/BH

ট্যাগ :
জনপ্রিয়

শিলাস্তির সর্বোচ্চ শাস্তি চাইলেন তার দাদা

প্রকাশিত : ০৮:২৭:১১ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৫ মে ২০২৪

ঝিনাইদহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজীম আনার হত্যাকাণ্ডে জড়িত সন্দেহে গ্রেপ্তার হয়ে পুলিশের রিমান্ডে রয়েছেন শিলাস্তি রহমান নামের এক তরুণী। অভিযোগ প্রমাণিত হলে শিলাস্তির দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাইলেন তার দাদা বীর মুক্তিযোদ্ধা সেলিম মিয়া।

শনিবার (২৫ মে) শিলাস্তি রহমানের বাড়ি টাঙ্গাইলের নাগরপুর উপজেলার ধবুরিয়া ইউনিয়নের পাইসানা গ্রামে গেলে সংবাদকর্মীদের এ কথা বলেন শিলাস্তির মুক্তিযোদ্ধা দাদা।

সেলিম মিয়া জানান, শিলাস্তি তার বড় ভাইয়ের ছেলের (ভাতিজা) সন্তান শিলাস্তি। সম্পর্কে নাতনি। দুই বোনের মধ্যে শিলাস্তি বড়। তার বাবা আরিফুর রহমান পাট ব্যবসায়ী।

শিলাস্তির মুক্তিযোদ্ধা দাদা আরও বলেন, ছোট বেলা থেকেই শিলাস্তিরা ঢাকার উত্তরায় বসবাস করে। মাঝে মধ্যে গ্রামের বাড়িতে আসে। তবে দুই একদিন পর আবার চলে যেত।

এমপি আনার হত্যায় তার নাতনির সম্পৃক্ততা নিয়ে সেলিম মিয়া বেশি কিছু জানেন না। পত্রপত্রিকা পড়ে তিনি সেই হত্যায় জড়িত থাকার অভিযোগে তার নাতনির গ্রেপ্তার ও রিমান্ডে নেয়ার তথ্য জেনেছেন।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে সেলিম মিয়া বলেন, “আদালতের বিচারে যদি হত্যাকাণ্ডে শিলাস্তির জড়িত থাকার প্রমাণ মেলে, তবে তার সর্বোচ্চ শাস্তি হোক সেটাই চাই।”

উল্লেখ্য, পাইসানা গ্রামে শিলাস্তিদের দুইটি বাড়ি পাশাপাশি। একটি টিনের আর এর পাশেই নির্মাণ করা হয়েছে দোতলা বিল্ডিং। তবে সেই বাড়িতে নেই কোনো আসবাবপত্র।

বিজনেস বাংলাদেশ/BH