০৬:৩৩ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪

জমে উঠেছে ইউরো– কারা গেল নকআউটে, কারা অপেক্ষায়?

বিশ্বকাপের ডামাডোলের মাঝে অনেকটা নীরবেই পার হচ্ছে ফুটবলের অন্যতম বড় আসর ইউরো। ইউরোপিয়ান ফুটবলের মহাদেশীয় শ্রেষ্ঠত্বের এই আসরে চলছে তৃতীয় ম্যাচডে। এরইমাঝে নকআউটের টিকিট নিশ্চিত করেছে জার্মানি, স্পেনের মতো হেভিওয়েট দলগুলো। আবার নেদারল্যান্ডসের মতো ফেবারিটরা আছে অপেক্ষায়। মুগ্ধ করেছে রালফ র‍্যাংনিকের অস্ট্রিয়া। নেদারল্যান্ডস এবং ফ্রান্সকে সরিয়ে তারা উঠেছে গ্রুপ সেরা হয়ে।

আবার ক্রোয়েশিয়া মাত্র ২ পয়েন্ট নিয়ে আছে বিদায়ের অপেক্ষায়। শঙ্কা আছে আরও অনেকেরই। ইউরোর গ্রুপগুলোর নিয়ম অনুযায়ী, প্রতিটি গ্রুপের সেরা দুই দল চলে যাবে শেষ ষোলোতে। আর তৃতীয় হওয়া দলগুলোর মধ্যে সেরা চারটি দল যোগ দেবে তাদের সঙ্গে।

গ্রুপ ‘এ’ থেকে শেষ ১৬ এর টিকিট কেটেছে জার্মানি এবং সুইজারল্যান্ড। ৩ ম্যাচ থেকে জার্মানির পয়েন্ট ৭ আর সুইজারল্যান্ডের ৫। এই দুই দলই নিজেদের শেষ ১৬ এর প্রতিপক্ষ সম্পর্কেও নিশ্চিত হয়েছে। জার্মানি প্রতিপক্ষ হিসেবে পাচ্ছে ‘সি’ গ্রুপে দ্বিতীয় হওয়া ডেনমার্ককে। আর সুইজারল্যান্ডের প্রতিপক্ষ বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ইতালি। ‘এ’ গ্রুপের তৃতীয় হয়েছে হাঙ্গেরি। তারাও আছে নকআউটের অপেক্ষায়।

‘বি’ গ্রুপ ছিল এবারের আসরের গ্রুপ অব ডেথ। স্পেন এবং ইতালি এই গ্রুপ থেকে উঠে গিয়েছে নকআউটে। শতভাগ জয় নিয়ে পরের পর্বে গিয়েছে স্পেন। আর ইতালির অর্জন চার পয়েন্ট। বাদ পড়েছে আলবেনিয়া। ২ পয়েন্ট নিয়ে তিন আছে ক্রোয়েশিয়া। আলবেনিয়ার মতো তাদেরও বিদায় হয়েছে গ্রুপপর্ব থেকেই।

‘সি’ গ্রুপে ইংল্যান্ড প্রত্যাশিতভাবেই সবার ওপরে থেকে চলে গিয়েছে রাউন্ড অব সিক্সটিনে। দ্বিতীয় হয়েছে ডেনমার্ক। আর তৃতীয় স্লোভেনিয়া। বিষ্ময়করভাবে এই গ্রুপ থেকে বাদ গিয়েছে সার্বিয়া। ডেনমার্ক ও স্লোভেনিয়ার অবস্থান নির্ধারণ হয়েছে অদ্ভুত এক নিয়মে। দল দুটির অর্জিত পয়েন্ট, গোল ব্যবধান, গোল করা, শৃঙ্খলা (লাল ও হলুদ কার্ড)—সব কিছুর নিরিখেই ছিল সমানে–সমান।

কিন্তু ইউরোর বাছাই পর্বে ডেনমার্ক ছিল এগিয়ে। দুই দল বাছাইয়েও খেলেছিল একই গ্রুপ ‘এইচে’। সেখানে ডেনমার্ক হয়েছিল গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন আর স্লোভেনিয়া হয়েছিল রানার্সআপ। মূল পর্বে তাই ডেনমার্ককে গ্রুপের দ্বিতীয় ও স্লোভেনিয়াকে তৃতীয় সেরা দল বিবেচনা করা হয়েছে। গ্রুপ ‘ডি’তে দেখা গিয়েছে চরম নাটকীয়তা। সবাইকে চমক দিয়ে অস্ট্রিয়া গ্রুপসেরা হয়েছে এই গ্রুপ থেকে। ফ্রান্স হয়েছে দ্বিতীয়। নেদারল্যান্ডস তৃতীয় অবস্থানে থাকছে।

গ্রুপ ‘ই’র লড়াই জমজমাট। চার দলেরই সংগ্রহ ৩ পয়েন্ট। রোমানিয়া, বেলজিয়াম, স্লোভাকিয়া এবং ইউক্রেন সকলের সামনেই প্রায় সমান সুযোগ। শেষ দু’ম্যাচে মুখোমুখি হবে ইউক্রেন-বেলজিয়াম এবং রোমানিয়া-স্লোভাকিয়া। যে দু’দল জিতবে তারা যাবে পরের রাউন্ডে। দু’টি ম্যাচ ড্র হলে গোল পার্থক্যের নিরিখে এগিয়ে রয়েছে রোমানিয়া এবং বেলজিয়াম। ছিটকে যাবে ইউক্রেন। তৃতীয় স্থানে শেষ করায় সুযোগ থাকবে স্লোভাকিয়ার সামনে।

গ্রুপ ‘এফ’ থেকে পরের রাউন্ডে চলে গিয়েছে পর্তুগাল। ৩ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে তুরস্ক। তৃতীয় স্থানে থাকা চেক প্রজাতন্ত্র এবং চতুর্থ স্থানে থাকা জর্জিয়ার সংগ্রহ ১ পয়েন্ট করে। শেষ ম্যাচে চেক প্রজাতন্ত্রের সঙ্গে ড্র করলেই পরের রাউন্ডে চলে যাবে তুরস্ক। আবার জিততে পারলে শেষ ১৬র দরজা খুলে যাবে চেকিয়ার সামনে। সে ক্ষেত্রে অপেক্ষা করতে হবে তুরস্ককে। চেকিয়ার মতো তাদের মতোই জর্জিয়ার সামনে জেতা ছাড়া পথ নেই।

তৃতীয় হওয়া দলগুলোর মধ্যে সবচেয়ে ভাল অবস্থানে আছে নেদারল্যান্ডস। তাদের সংগ্রহ ৪ পয়েন্ট। স্লোভাকিয়া, স্লোভেনিয়া এবং হাঙ্গেরির পয়েন্ট ৩ করে। এদের মধ্যে স্লোভাকিয়া খেলেছে ২ ম্যাচ। তলানিতে থাকা চেকিয়া উঠে আসতে পারে ওপরে। শেষ ম্যাচে এজন্য জয় দরকার তাদের।

বিজনেস বাংলাদেশ/একে

জমে উঠেছে ইউরো– কারা গেল নকআউটে, কারা অপেক্ষায়?

প্রকাশিত : ১২:০৬:৫৮ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৬ জুন ২০২৪

বিশ্বকাপের ডামাডোলের মাঝে অনেকটা নীরবেই পার হচ্ছে ফুটবলের অন্যতম বড় আসর ইউরো। ইউরোপিয়ান ফুটবলের মহাদেশীয় শ্রেষ্ঠত্বের এই আসরে চলছে তৃতীয় ম্যাচডে। এরইমাঝে নকআউটের টিকিট নিশ্চিত করেছে জার্মানি, স্পেনের মতো হেভিওয়েট দলগুলো। আবার নেদারল্যান্ডসের মতো ফেবারিটরা আছে অপেক্ষায়। মুগ্ধ করেছে রালফ র‍্যাংনিকের অস্ট্রিয়া। নেদারল্যান্ডস এবং ফ্রান্সকে সরিয়ে তারা উঠেছে গ্রুপ সেরা হয়ে।

আবার ক্রোয়েশিয়া মাত্র ২ পয়েন্ট নিয়ে আছে বিদায়ের অপেক্ষায়। শঙ্কা আছে আরও অনেকেরই। ইউরোর গ্রুপগুলোর নিয়ম অনুযায়ী, প্রতিটি গ্রুপের সেরা দুই দল চলে যাবে শেষ ষোলোতে। আর তৃতীয় হওয়া দলগুলোর মধ্যে সেরা চারটি দল যোগ দেবে তাদের সঙ্গে।

গ্রুপ ‘এ’ থেকে শেষ ১৬ এর টিকিট কেটেছে জার্মানি এবং সুইজারল্যান্ড। ৩ ম্যাচ থেকে জার্মানির পয়েন্ট ৭ আর সুইজারল্যান্ডের ৫। এই দুই দলই নিজেদের শেষ ১৬ এর প্রতিপক্ষ সম্পর্কেও নিশ্চিত হয়েছে। জার্মানি প্রতিপক্ষ হিসেবে পাচ্ছে ‘সি’ গ্রুপে দ্বিতীয় হওয়া ডেনমার্ককে। আর সুইজারল্যান্ডের প্রতিপক্ষ বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ইতালি। ‘এ’ গ্রুপের তৃতীয় হয়েছে হাঙ্গেরি। তারাও আছে নকআউটের অপেক্ষায়।

‘বি’ গ্রুপ ছিল এবারের আসরের গ্রুপ অব ডেথ। স্পেন এবং ইতালি এই গ্রুপ থেকে উঠে গিয়েছে নকআউটে। শতভাগ জয় নিয়ে পরের পর্বে গিয়েছে স্পেন। আর ইতালির অর্জন চার পয়েন্ট। বাদ পড়েছে আলবেনিয়া। ২ পয়েন্ট নিয়ে তিন আছে ক্রোয়েশিয়া। আলবেনিয়ার মতো তাদেরও বিদায় হয়েছে গ্রুপপর্ব থেকেই।

‘সি’ গ্রুপে ইংল্যান্ড প্রত্যাশিতভাবেই সবার ওপরে থেকে চলে গিয়েছে রাউন্ড অব সিক্সটিনে। দ্বিতীয় হয়েছে ডেনমার্ক। আর তৃতীয় স্লোভেনিয়া। বিষ্ময়করভাবে এই গ্রুপ থেকে বাদ গিয়েছে সার্বিয়া। ডেনমার্ক ও স্লোভেনিয়ার অবস্থান নির্ধারণ হয়েছে অদ্ভুত এক নিয়মে। দল দুটির অর্জিত পয়েন্ট, গোল ব্যবধান, গোল করা, শৃঙ্খলা (লাল ও হলুদ কার্ড)—সব কিছুর নিরিখেই ছিল সমানে–সমান।

কিন্তু ইউরোর বাছাই পর্বে ডেনমার্ক ছিল এগিয়ে। দুই দল বাছাইয়েও খেলেছিল একই গ্রুপ ‘এইচে’। সেখানে ডেনমার্ক হয়েছিল গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন আর স্লোভেনিয়া হয়েছিল রানার্সআপ। মূল পর্বে তাই ডেনমার্ককে গ্রুপের দ্বিতীয় ও স্লোভেনিয়াকে তৃতীয় সেরা দল বিবেচনা করা হয়েছে। গ্রুপ ‘ডি’তে দেখা গিয়েছে চরম নাটকীয়তা। সবাইকে চমক দিয়ে অস্ট্রিয়া গ্রুপসেরা হয়েছে এই গ্রুপ থেকে। ফ্রান্স হয়েছে দ্বিতীয়। নেদারল্যান্ডস তৃতীয় অবস্থানে থাকছে।

গ্রুপ ‘ই’র লড়াই জমজমাট। চার দলেরই সংগ্রহ ৩ পয়েন্ট। রোমানিয়া, বেলজিয়াম, স্লোভাকিয়া এবং ইউক্রেন সকলের সামনেই প্রায় সমান সুযোগ। শেষ দু’ম্যাচে মুখোমুখি হবে ইউক্রেন-বেলজিয়াম এবং রোমানিয়া-স্লোভাকিয়া। যে দু’দল জিতবে তারা যাবে পরের রাউন্ডে। দু’টি ম্যাচ ড্র হলে গোল পার্থক্যের নিরিখে এগিয়ে রয়েছে রোমানিয়া এবং বেলজিয়াম। ছিটকে যাবে ইউক্রেন। তৃতীয় স্থানে শেষ করায় সুযোগ থাকবে স্লোভাকিয়ার সামনে।

গ্রুপ ‘এফ’ থেকে পরের রাউন্ডে চলে গিয়েছে পর্তুগাল। ৩ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে তুরস্ক। তৃতীয় স্থানে থাকা চেক প্রজাতন্ত্র এবং চতুর্থ স্থানে থাকা জর্জিয়ার সংগ্রহ ১ পয়েন্ট করে। শেষ ম্যাচে চেক প্রজাতন্ত্রের সঙ্গে ড্র করলেই পরের রাউন্ডে চলে যাবে তুরস্ক। আবার জিততে পারলে শেষ ১৬র দরজা খুলে যাবে চেকিয়ার সামনে। সে ক্ষেত্রে অপেক্ষা করতে হবে তুরস্ককে। চেকিয়ার মতো তাদের মতোই জর্জিয়ার সামনে জেতা ছাড়া পথ নেই।

তৃতীয় হওয়া দলগুলোর মধ্যে সবচেয়ে ভাল অবস্থানে আছে নেদারল্যান্ডস। তাদের সংগ্রহ ৪ পয়েন্ট। স্লোভাকিয়া, স্লোভেনিয়া এবং হাঙ্গেরির পয়েন্ট ৩ করে। এদের মধ্যে স্লোভাকিয়া খেলেছে ২ ম্যাচ। তলানিতে থাকা চেকিয়া উঠে আসতে পারে ওপরে। শেষ ম্যাচে এজন্য জয় দরকার তাদের।

বিজনেস বাংলাদেশ/একে