১২:৫১ অপরাহ্ন, শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪

সাদেক অ্যাগ্রোতে নেই কোটি টাকা দামের সেই ব্রাহাম জাতের গরু

ছাগলকান্ডের পর থেকে আলোচনা সমালোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে নাম উঠে আসে সাদেক অ্যাগ্রোর। অবৈধ উপায়ে ব্রাহাম জাতের গরু আমদানী , কেনা দামের চেয়ে কয়েকগুণ বেশি দামে কোরবানির পশু বিক্রি সহ খাল ও সড়ক দখল করে খামার গড়ার ও অভিযোগ উঠেছে সাদেক অ্যাগ্রোর বিরুদ্ধে। পরে মোহাম্মদপুরে খাল ও সড়কের উপর অবৈধ উপায়ে গড়া অবৈধ স্থাপনায় উচ্ছেদ অভিযান চালিয়ে দখলমুক্ত করে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন (ডিএনসিসি। উচ্ছেদ অভিযানের খবর পেয়ে এর আগের দিন বুধবার রাতের আধারে সাদেক অ্যাগ্রোর খামারে থাকা ব্রাহাম জাতের সেই কোটি টাকার গরুটি সরিয়ে ফেলা হয়। তবে সেখানে ১৫ লাখ টাকা দামের সেই ব্রিটল জাতের ছাগল ও কয়েকটি গরুর দেখা পাওয়া গেছে।

বৃহস্প্রতিবার সকালে এই অবৈধ স্থাপনার উপর উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন (ডিএনসিসি)।

স্থানীয়রা জানান, অভিযান হবে এই খবর শোনার পর থেকেই সাদিক অ্যাগ্রোর বেশ কিছু গরু-ছাগল রাতে সরিয়ে নিতে দেখেছেন তারা। এছাড়া রাস্তার ওপরে তাদের প্যান্ডেল করা ছিল, অস্থায়ী স্থাপনা ছিল সেগুলো সরিয়ে নিয়েছে।

সাদিক এগ্রোতে কাজ করেন স্বপন আহমেদ। তিনি আজকের বিজনেস বাংলাদেশকে বলেন, ’কোটি টাকা দামের বড় সাইজের ব্রাহমা জাতের গরুটি এখান থেকে রাতে সরানো হয়েছে। কিন্তু কোথায় নেওয়া হয়েছে সেটা জানি না।’

উল্লেখ্য, সাদিক এগ্রোর ইমরান হোসেন খালের একাংশে মাটি ভরাট করে এ খামার গড়েছেন। যদিও উচ্ছেদ অভিযানের খবর পেয়ে আশেপাশের অবৈধ দখলদারেরা তাদের স্থাপনা সরিয়ে নিয়ে যায়।

বিজনেস বাংলাদেশ/DS

 

সাদেক অ্যাগ্রোতে নেই কোটি টাকা দামের সেই ব্রাহাম জাতের গরু

প্রকাশিত : ০৪:০২:৪১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৭ জুন ২০২৪

ছাগলকান্ডের পর থেকে আলোচনা সমালোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে নাম উঠে আসে সাদেক অ্যাগ্রোর। অবৈধ উপায়ে ব্রাহাম জাতের গরু আমদানী , কেনা দামের চেয়ে কয়েকগুণ বেশি দামে কোরবানির পশু বিক্রি সহ খাল ও সড়ক দখল করে খামার গড়ার ও অভিযোগ উঠেছে সাদেক অ্যাগ্রোর বিরুদ্ধে। পরে মোহাম্মদপুরে খাল ও সড়কের উপর অবৈধ উপায়ে গড়া অবৈধ স্থাপনায় উচ্ছেদ অভিযান চালিয়ে দখলমুক্ত করে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন (ডিএনসিসি। উচ্ছেদ অভিযানের খবর পেয়ে এর আগের দিন বুধবার রাতের আধারে সাদেক অ্যাগ্রোর খামারে থাকা ব্রাহাম জাতের সেই কোটি টাকার গরুটি সরিয়ে ফেলা হয়। তবে সেখানে ১৫ লাখ টাকা দামের সেই ব্রিটল জাতের ছাগল ও কয়েকটি গরুর দেখা পাওয়া গেছে।

বৃহস্প্রতিবার সকালে এই অবৈধ স্থাপনার উপর উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন (ডিএনসিসি)।

স্থানীয়রা জানান, অভিযান হবে এই খবর শোনার পর থেকেই সাদিক অ্যাগ্রোর বেশ কিছু গরু-ছাগল রাতে সরিয়ে নিতে দেখেছেন তারা। এছাড়া রাস্তার ওপরে তাদের প্যান্ডেল করা ছিল, অস্থায়ী স্থাপনা ছিল সেগুলো সরিয়ে নিয়েছে।

সাদিক এগ্রোতে কাজ করেন স্বপন আহমেদ। তিনি আজকের বিজনেস বাংলাদেশকে বলেন, ’কোটি টাকা দামের বড় সাইজের ব্রাহমা জাতের গরুটি এখান থেকে রাতে সরানো হয়েছে। কিন্তু কোথায় নেওয়া হয়েছে সেটা জানি না।’

উল্লেখ্য, সাদিক এগ্রোর ইমরান হোসেন খালের একাংশে মাটি ভরাট করে এ খামার গড়েছেন। যদিও উচ্ছেদ অভিযানের খবর পেয়ে আশেপাশের অবৈধ দখলদারেরা তাদের স্থাপনা সরিয়ে নিয়ে যায়।

বিজনেস বাংলাদেশ/DS