ঢাকা দুপুর ১২:৫২, বুধবার, ২৭শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১১ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

কাজেই প্রমান দিচ্ছেন এক উদ্যোক্তা

দাম কম হওয়াতে নামী-দামী ব্রান্ডের মোবাইলফোন হ্যান্ডসেট দেশে বাইরে থেকে নিয়ে আসেন অনেক ব্যবহারকারীই। এমন বেশকিছু ব্রান্ডের ফোন রয়েছে যেগুলোর জন্য দেশে নেই তেমন কোন অথরাইজড সার্ভিসিং সেন্টার । সেক্ষেত্রে যেতে হয় বিভিন্ন সার্ভিসিং সেন্টারে। সার্ভিসিং সেন্টারে গেলে মেলেনা তেমন আশানুরুপ তাদের কাজ। বেশকিছু মুঠোফোন রয়েছে যেগুলো বিশ্বজুড়ে প্রচলিত তবে দেশের বাজারে নেই ঐসব প্রতিষ্ঠানের কোন বিক্রয় বা বিক্রয়োত্তর সেবা প্রতিষ্ঠান । সেক্ষেত্রে উপায় এমন বিভিন্ন মোবাইল সার্ভিসিং সেন্টারগুলো।

অনেক মোবাইল ফোনের দেশের বাজারে মূল্য বেশি হওয়াতের নিয়ে আসেন বিদেশ থেকে, ফলে সেগুলোরও সরাসরি কোম্পানি অথরাইজড সেন্টার থেকে মেলে না বিক্রয়োত্তর সেবা-এমনটাই জানালেন গ্রাহক। মেরামতের দীর্ঘসূত্রিতার কারনে অনেকেই স্মরণাপন্ন হন বিভিন্ন মার্কেটের স্থানীয় মেরামতকারীদের কাছে। সেগুলোর সবচেয়ে বড় মার্কেট রয়েছে রাজধানীর মোতালেব প্লাজায়।

সেবা নিতে আসা ভোক্তাদের হতাশ করছেন না একজন উদ্যোক্তা। এই উদ্যোক্তার নাম সজিব জমাদ্দার। স্বউদ্যোগে বাস্তব প্রশিক্ষণ আর অত্যাধুনিক মেশিন ব্যবহারের সফলতা দেখা যাচ্ছে মেরামতকারী প্রতিষ্ঠানে। যিনি ‘মোবাইল ফিক্সসার’ নামের একাধিক সার্ভিস সেন্টারের কর্ণধার। দেশের বাইরে থেকে দীর্ঘদিন প্রশিক্ষণের পাশাপাশি বাস্তব অভিজ্ঞতা নিয়ে এসে সেটিই কাজে লাগিয়েছেন নিজ দেশে।

তার মোবাইল ফিক্সসার সার্ভিসিং সেন্টারে ৫টি শাখাতে কাজ করছেন প্রায় ৫০ জন কর্মী। সার্ভিস দিচ্ছেন সব রকমের মোবাইল ত্রুটির সমাধানে। ভাঙা ফোন থেকে শুরু করে সব ধরনের সেবাই মিলছে তার কাছে। রয়েছে অত্যাধুনিক যন্ত্রাংশ মেরামতের মেশিন।

উন্নত পাওয়ার সাপ্লাই, ডিসপ্লে লেমিনেশন, বাবল রিমোভারসহ অত্যধুনিক যন্ত্রাংশের ব্যবহার করছেন তার প্রতিষ্ঠানগুলোতে। শুধু তাই নয় বিশেষায়িত ফোন সারাইয়েও তিনি রাখছেন বিশেষ ভূমিকা, সাথে রয়েছে ওয়ারেন্টি কিংবা গ্যারান্টিও।

বিজনেস বাংলাদেশ/ এ আর

এ বিভাগের আরও সংবাদ