০২:৪০ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪

আমেনার হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবি

শরীয়তপুরের ডামুড্যায় আমেনা বেগম হত্যা মামলায় জড়িতদের ফাঁসির দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল করেছে নিহতের পরিবার ও ইসলামপুর ইউনিয়নবাসী।

মঙ্গলবার (১৬ মার্চ) সকাল সাড়ে ৯টায় এ বিক্ষোভ মিছিল করা হয়।

শরীয়তপুর শহরের সরকারি গোলাম হায়দার খান মহিলা কলেজের সামনে থেকে এই মিছিল বের হয়ে প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে গিয়ে শেষ হয়। সেখানেই ঘণ্টাব্যাপী মানববন্ধন করেন তারা।

মানববন্ধনে নিহতের বড় ভাই আমিনুল ইসলাম বলেন, আমার বোনকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে। স্বামী নজরুল ইসলাম মাদবর, দেবর সজল মাদবর, জা মাজেদা বেগম, দুই ননদ সাহানা বেগম ও রাজিয়া বেগম মিলে পূর্বপরিকল্পনা অনুযায়ী হত্যা করে আমার বোনকে। বিয়ের পর থেকেই সজল, মাজেদা, সাহানা ও রাজিয়া চায়নি নজরুলের সঙ্গে আমার বোন সংসার করুক। সেজন্য তারা ষড়যন্ত্র করছিল। এতে ক্ষিপ্ত হয়েই আমেনাকে হত্যা করেছে নজুরুল।

তিনি আরও বলেন, আমরা ওই পরিবারের পাঁচ সদস্যের বিরুদ্ধে মামলা করি। কিন্তু এজাহারভুক্ত পাঁচ আসামির মধ্যে চারজনের নাম বাদ দিয়ে চার্জশিট দাখিল করেছে পুলিশ। এতে প্রকৃত অপরাধীরা পার পেয়ে যাবে। হত্যা মামলায় জড়িত সবাইকে বিচারের আওতায় আনার দাবি জানাই।

ট্যাগ :

শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা নিশ্চিতের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

আমেনার হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবি

প্রকাশিত : ১২:০১:৫৭ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৭ মার্চ ২০২১

শরীয়তপুরের ডামুড্যায় আমেনা বেগম হত্যা মামলায় জড়িতদের ফাঁসির দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল করেছে নিহতের পরিবার ও ইসলামপুর ইউনিয়নবাসী।

মঙ্গলবার (১৬ মার্চ) সকাল সাড়ে ৯টায় এ বিক্ষোভ মিছিল করা হয়।

শরীয়তপুর শহরের সরকারি গোলাম হায়দার খান মহিলা কলেজের সামনে থেকে এই মিছিল বের হয়ে প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে গিয়ে শেষ হয়। সেখানেই ঘণ্টাব্যাপী মানববন্ধন করেন তারা।

মানববন্ধনে নিহতের বড় ভাই আমিনুল ইসলাম বলেন, আমার বোনকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে। স্বামী নজরুল ইসলাম মাদবর, দেবর সজল মাদবর, জা মাজেদা বেগম, দুই ননদ সাহানা বেগম ও রাজিয়া বেগম মিলে পূর্বপরিকল্পনা অনুযায়ী হত্যা করে আমার বোনকে। বিয়ের পর থেকেই সজল, মাজেদা, সাহানা ও রাজিয়া চায়নি নজরুলের সঙ্গে আমার বোন সংসার করুক। সেজন্য তারা ষড়যন্ত্র করছিল। এতে ক্ষিপ্ত হয়েই আমেনাকে হত্যা করেছে নজুরুল।

তিনি আরও বলেন, আমরা ওই পরিবারের পাঁচ সদস্যের বিরুদ্ধে মামলা করি। কিন্তু এজাহারভুক্ত পাঁচ আসামির মধ্যে চারজনের নাম বাদ দিয়ে চার্জশিট দাখিল করেছে পুলিশ। এতে প্রকৃত অপরাধীরা পার পেয়ে যাবে। হত্যা মামলায় জড়িত সবাইকে বিচারের আওতায় আনার দাবি জানাই।