০৩:২১ অপরাহ্ন, রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪

‘পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষার সিদ্ধান্ত’

পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষার সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, ঢাকার চেয়ারম্যান অধ্যাপক নেহাল আহমেদ।

স্বাস্থ্যবিধি মেনে ২০২১ সালের এসএসসি পরীক্ষা হচ্ছে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি আজ গণ্যমাধ্যমকে বলেন, পরীক্ষা কবে হবে সেটা এখনই বলা যাচ্ছে না। আমরা প্রস্তুতি নিয়ে রাখছি। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষার সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

এদিকে বোর্ড সূত্রে জানা গেছে, এসএসসি পরীক্ষার সংক্ষিপ্ত সিলেবাস প্রকাশ করা হয়েছে কয়েকমাস আগেই। সিলেবাস প্রকাশের পর শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছিলেন, ‘পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার পর ৬০ দিনের ক্লাস শেষ করে এস.এস.সি পরীক্ষা এবং ৮৪ দিন ক্লাস করিয়ে এইচ.এস.সি পরীক্ষা নেওয়া হবে।’

এ পরিস্থিতিতে গত ১ জুন থেকে এসএসসি’র নতুন কেন্দ্র স্থাপন ও কেন্দ্র পরিবর্তনের আবেদন গ্রহণ শুরু করেছে ঢাকা বোর্ড। আগামী ৩০ জুন পর্যন্ত নতুন কেন্দ্র স্থাপন ও কেন্দ্র পরিবর্তনের আবেদন গ্রহণ চলবে। নন-এমপিও কোনো প্রতিষ্ঠান বা ভাড়া করা ভবনে পরিচালিত প্রতিষ্ঠানগুলোকে নতুন কেন্দ্রের আবেদন না করতে বলেছে বোর্ড।

বিজনেস বাংলাদেশ/ এস শিকদার

জনপ্রিয়

‘পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষার সিদ্ধান্ত’

প্রকাশিত : ১২:২৩:২৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ৭ জুন ২০২১

পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষার সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, ঢাকার চেয়ারম্যান অধ্যাপক নেহাল আহমেদ।

স্বাস্থ্যবিধি মেনে ২০২১ সালের এসএসসি পরীক্ষা হচ্ছে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি আজ গণ্যমাধ্যমকে বলেন, পরীক্ষা কবে হবে সেটা এখনই বলা যাচ্ছে না। আমরা প্রস্তুতি নিয়ে রাখছি। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষার সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

এদিকে বোর্ড সূত্রে জানা গেছে, এসএসসি পরীক্ষার সংক্ষিপ্ত সিলেবাস প্রকাশ করা হয়েছে কয়েকমাস আগেই। সিলেবাস প্রকাশের পর শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছিলেন, ‘পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার পর ৬০ দিনের ক্লাস শেষ করে এস.এস.সি পরীক্ষা এবং ৮৪ দিন ক্লাস করিয়ে এইচ.এস.সি পরীক্ষা নেওয়া হবে।’

এ পরিস্থিতিতে গত ১ জুন থেকে এসএসসি’র নতুন কেন্দ্র স্থাপন ও কেন্দ্র পরিবর্তনের আবেদন গ্রহণ শুরু করেছে ঢাকা বোর্ড। আগামী ৩০ জুন পর্যন্ত নতুন কেন্দ্র স্থাপন ও কেন্দ্র পরিবর্তনের আবেদন গ্রহণ চলবে। নন-এমপিও কোনো প্রতিষ্ঠান বা ভাড়া করা ভবনে পরিচালিত প্রতিষ্ঠানগুলোকে নতুন কেন্দ্রের আবেদন না করতে বলেছে বোর্ড।

বিজনেস বাংলাদেশ/ এস শিকদার