০৩:১৯ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪

উত্তরের মহাসড়কে স্বস্তির ঈদযাত্রা

প্রিয়জদের সঙ্গে ঈদ উদযাপন করতে নাড়ির টানে বাড়ি ফিরছেন মানুষ। যার ফলে উত্তরবঙ্গের প্রবেশদ্বার সিরাজগঞ্জের মহাসড়কে যানবাহনের চাপ ক্রমান্বয়ে বেড়ে চলেছে। তবে গাড়ির চাপ বাড়তে থাকলেও এই মহাসড়কে এখনো কোথাও কোনো ধীরগতি বা যানজটের সৃষ্টি হয়নি। স্বাভাবিক গতিতে চলাচল করছে সব ধরনের যানবাহন।

সোমবার (৮ এপ্রিল) সকাল ৮টার দিকে সিরাজগঞ্জের মহাসড়ক ঘুরে এমন দৃশ্য দেখা গেছে। গতকালের চেয়ে যানবাহনের সংখ্যা বেড়েছে। তবে অন্যান্য সময়ের মতোই একদম স্বাভাবিক গতিতে সব যানবাহন চলাচল করছে। যার ফলে এখন পর্যন্ত এই মহাসড়কে কাউকে ভোগান্তি পোহাতে দেখা যায়নি। মহাসড়ক জুড়ে তৎপর রয়েছে পুলিশ।

ঢাকা থেকে নওগাঁগামী শ্যামলী পরিবহনের চালক আব্দুর রাজ্জাক বলেন, ঈদের আগে এই সময়ে সিরাজগঞ্জের মহাসড়ক এতোটা ফাঁকা পাব ভাবতেই পারিনি। ঈদের আগে যে গাড়ি চালাচ্ছি এটা মনেই হচ্ছে না। যেহেতু রাস্তা ভালো আছে তাই আমরা চালকরা রাস্তায় এলোমেলো গাড়ি না চালালে এবার সমস্যা হবে না।

হাটিকুমরুল হাইওয়ে থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এম.এ ওয়াদুদ বলেন, সময়ের সঙ্গে সঙ্গে মহাসড়কে গাড়ির চাপ বেড়েই চলেছে। রাতে এই চাপটা আরেকটু বেশি ছিল। তবে মহাসড়কের কোথাও কোনো ভোগান্তি নেই। সব গাড়ি একদম নির্বিঘ্নে চলাচল করছে।

তিনি আরও বলেন, আজ সব শিল্পকারখানা ছুটি হবে। তাই আমরা ধারণা করছি মহাসড়কে যানবাহনের সর্বোচ্চ চাপটা আজ বিকেল থেকে শুরু হবে। সেই বিষয়টি মাথায় নিয়েই আমরা কাজ করছি। আশা করছি মহাসড়কে যানজটের মতো কোনো অবস্থা এ বছরে সৃষ্টি হবে না।

সিরাজগঞ্জ ট্রাফিক পুলিশের পরিদর্শক (প্রশাসন) মো. জাফর উল্লাহ রুবেল বলেন, ধীরে ধীরে মহাসড়কে গাড়ির চাপ বাড়ছে তবে যান চলাচল একদম স্বাভাবিক। চাপ আরও বাড়বে। তবে এবার সিরাজগঞ্জের মহাসড়কে যানজটের সম্ভাবনা নেই বললেই চলে।

বিজনেস বাংলাদেশ/একে

উত্তরের মহাসড়কে স্বস্তির ঈদযাত্রা

প্রকাশিত : ১০:৩০:৩৬ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৮ এপ্রিল ২০২৪

প্রিয়জদের সঙ্গে ঈদ উদযাপন করতে নাড়ির টানে বাড়ি ফিরছেন মানুষ। যার ফলে উত্তরবঙ্গের প্রবেশদ্বার সিরাজগঞ্জের মহাসড়কে যানবাহনের চাপ ক্রমান্বয়ে বেড়ে চলেছে। তবে গাড়ির চাপ বাড়তে থাকলেও এই মহাসড়কে এখনো কোথাও কোনো ধীরগতি বা যানজটের সৃষ্টি হয়নি। স্বাভাবিক গতিতে চলাচল করছে সব ধরনের যানবাহন।

সোমবার (৮ এপ্রিল) সকাল ৮টার দিকে সিরাজগঞ্জের মহাসড়ক ঘুরে এমন দৃশ্য দেখা গেছে। গতকালের চেয়ে যানবাহনের সংখ্যা বেড়েছে। তবে অন্যান্য সময়ের মতোই একদম স্বাভাবিক গতিতে সব যানবাহন চলাচল করছে। যার ফলে এখন পর্যন্ত এই মহাসড়কে কাউকে ভোগান্তি পোহাতে দেখা যায়নি। মহাসড়ক জুড়ে তৎপর রয়েছে পুলিশ।

ঢাকা থেকে নওগাঁগামী শ্যামলী পরিবহনের চালক আব্দুর রাজ্জাক বলেন, ঈদের আগে এই সময়ে সিরাজগঞ্জের মহাসড়ক এতোটা ফাঁকা পাব ভাবতেই পারিনি। ঈদের আগে যে গাড়ি চালাচ্ছি এটা মনেই হচ্ছে না। যেহেতু রাস্তা ভালো আছে তাই আমরা চালকরা রাস্তায় এলোমেলো গাড়ি না চালালে এবার সমস্যা হবে না।

হাটিকুমরুল হাইওয়ে থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এম.এ ওয়াদুদ বলেন, সময়ের সঙ্গে সঙ্গে মহাসড়কে গাড়ির চাপ বেড়েই চলেছে। রাতে এই চাপটা আরেকটু বেশি ছিল। তবে মহাসড়কের কোথাও কোনো ভোগান্তি নেই। সব গাড়ি একদম নির্বিঘ্নে চলাচল করছে।

তিনি আরও বলেন, আজ সব শিল্পকারখানা ছুটি হবে। তাই আমরা ধারণা করছি মহাসড়কে যানবাহনের সর্বোচ্চ চাপটা আজ বিকেল থেকে শুরু হবে। সেই বিষয়টি মাথায় নিয়েই আমরা কাজ করছি। আশা করছি মহাসড়কে যানজটের মতো কোনো অবস্থা এ বছরে সৃষ্টি হবে না।

সিরাজগঞ্জ ট্রাফিক পুলিশের পরিদর্শক (প্রশাসন) মো. জাফর উল্লাহ রুবেল বলেন, ধীরে ধীরে মহাসড়কে গাড়ির চাপ বাড়ছে তবে যান চলাচল একদম স্বাভাবিক। চাপ আরও বাড়বে। তবে এবার সিরাজগঞ্জের মহাসড়কে যানজটের সম্ভাবনা নেই বললেই চলে।

বিজনেস বাংলাদেশ/একে