ঢাকা রাত ৮:১১, বুধবার, ৩০শে নভেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১৫ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

মাশরাফির আগমনে উদ্যম ফিরে পেয়েছে টাইগাররা

‘মাশরাফি ভাই থাকলে আমরা সবাই একসঙ্গে উপভোগ করি। তিনি অনেক মজা করেন। যার জন্য হয়তো বা আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের চাপটা অনেক সময়ে আমরা বুঝতে পারি না। এটা অবশ্যই একটা ইতিবাচক বিষয়। উনি এসে সবাইকে নিয়ে একসঙ্গে যে মোটিভেট করেন এটা অবশ্যই অনেক বড় জিনিস। ‘- এভাবেই জাতীয় ওয়ানডে দলের অধিনায়ককে ব্যখ্যা করলেন টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান ইমরুল কায়েস। মাশরাফি টেস্ট খেলেন না অনেকদিন হলো। কারণ তার শারিরীক সমস্যা। কিন্তু দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে ম্যাশকে মিস করেছে তার সতীর্থরা। দুটি ম্যাচেই বড় পরাজয় আর গণমাধ্যমের সামনে অধিনায়ক মুশফিকের ক্ষোভের বিস্ফোরণ, বোলারদের উদ্দেশে কড়া বাক্যবান-সব মিলিয়ে বাজে পরিস্থিতিতে ছিল বাংলাদেশ দল। ইমরুলের কথায় মনে হলো, ম্যাশের উপস্থিতিতে নতুন করে প্রাণ সঞ্চার হয়েছে জাতীয় দলে। কেবল মাশরাফি নন, ইমরুলের কথায় উঠে আসল দলের অপর দুই স্তম্ভ বিশ্বসেরা অল-রাউন্ডার সাকিব আল হাসান এবং তামিম ইকবালের নাম। এই দুজনকে ছাড়া টেস্টে যেন ব্যাটিং ভুলে গিয়েছিল বাংলাদেশ। ঊরুর পেশির চোটের জন্য ব্লুমফন্টেইনে দ্বিতীয় টেস্টে খেলতে পারেননি তামিম। আর টেস্ট থেকে ৩ মাসের ছুটিতে আছেন সাকিব। ইমরুলের আশা, দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে খেলবেন এই তিন তারকা। তাই সিরিজ নিয়ে স্বপ্ন দেখতে কোনো বাধা নেই ইমরুল কায়েসের। এই টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান বললেন, ‘মাশরাফি ভাই আর সাকিবের আসা, তামিমও খেলবে এবার। এমন তিন জন খেলোয়াড় না খেললে কতটা ঘাটতি থাকে সেটা তো আমরা এখানে শেষ টেস্টটা খেলে বুঝেছি। ওদের ছাড়া কতটা সংগ্রাম করতে হয়, আমরা বুঝেছি। অবশ্যই ওরা আসাতে দলের ভারসাম্য অনেক ভালো হয়েছে। আশা করি, ওয়ানডে সিরিজে প্রতিদ্বন্দ্বিতা ভাল হবে। আমাদের দলেও ভালো ভারসাম্য আছে এখন। ভালো খেলা হবে। ‘

এ বিভাগের আরও সংবাদ