০৮:৩৯ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

সিলেটকে ৭ উইকেটে হারালো রাজশাহী

বিপিএলে সিলেটকে ৭ উইকেটে হারিয়েছে রাজশাহী। জয়ের জন্য সিলেটের বেঁধে দেয়া ১৪৭ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে প্রথম থেকেই আগ্রাসী ব্যাটিং করতে থাকেন রাজশাহীর দুই ওপেনার মুমিনুল হক এবং রনি তালুকদার। দু’জনে মিলে গড়েন ৬৫ রানের ধুন্দুমার এক জুটি। এরপর ২২ বলে ২৪ রান করে রনি তালুকদার ফিরে গেলেও এক পাশ আগলে আগ্রাসি ব্যাটিং করে যান মুমিনুল।

এর মধ্যে সামিত প্যাটেল এসে অন্য ম্যাচগুলোর মতই ব্যর্থতার পরিচয় দিয়ে ফিরে যান ১ রান করেই। মুমিনুল তখন জুটি গড়েন উদীয়মান জাকির হাসানের সঙ্গে। গড়েন ৩১ রানের জুটি। তবে ৪২ রান করে মুমিনুল আউট হলেও, শেষ পর্যন্ত উইকেটে ছিলেন জাকির হাসান। ২৬ বলে খেলেন হার না মানা ৫১ রানের ইনিংস। তার স্কোরটি সাজানো ছিল ৪টি বাউন্ডারি এবং ৩টি ছক্কায়।

আর মুমিনুল ৩৬ বলে এক ছক্কা ও পাঁচ চারের সাহায্যে করেন ৪২ রান। রাজশাহীর হয়ে খেলা জাতীয় দলের টেস্ট অধিনায়ক মুশফিকুর রহীমের ব্যাট থেকেও আসে অপরাজিত ২৫ টি রান। তিনি খেলেন ২০ বল এবং বাউন্ডারি মারেন ৩টি।

সিলেটের হয়ে নাসির হোসেন, নাবিল সামাদ ও আবুল হাসান একটি করে উইকেট নেন। এ জয়ের ফলে রাজশাহী পয়েন্ট টেবিলের তলানী থেকে এক ধাপ উপরে উঠে আসলো আর সিলেট শীর্ষে ওঠার পরিবর্তে দুই নাম্বারে থাকাটাও নড়বড়ে করে দিলো। ম্যাচ সেরার পুরস্কার জেতেন জাকির হাসান

ট্যাগ :
জনপ্রিয়

সিলেটকে ৭ উইকেটে হারালো রাজশাহী

প্রকাশিত : ০৭:১২:৪৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৭

বিপিএলে সিলেটকে ৭ উইকেটে হারিয়েছে রাজশাহী। জয়ের জন্য সিলেটের বেঁধে দেয়া ১৪৭ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে প্রথম থেকেই আগ্রাসী ব্যাটিং করতে থাকেন রাজশাহীর দুই ওপেনার মুমিনুল হক এবং রনি তালুকদার। দু’জনে মিলে গড়েন ৬৫ রানের ধুন্দুমার এক জুটি। এরপর ২২ বলে ২৪ রান করে রনি তালুকদার ফিরে গেলেও এক পাশ আগলে আগ্রাসি ব্যাটিং করে যান মুমিনুল।

এর মধ্যে সামিত প্যাটেল এসে অন্য ম্যাচগুলোর মতই ব্যর্থতার পরিচয় দিয়ে ফিরে যান ১ রান করেই। মুমিনুল তখন জুটি গড়েন উদীয়মান জাকির হাসানের সঙ্গে। গড়েন ৩১ রানের জুটি। তবে ৪২ রান করে মুমিনুল আউট হলেও, শেষ পর্যন্ত উইকেটে ছিলেন জাকির হাসান। ২৬ বলে খেলেন হার না মানা ৫১ রানের ইনিংস। তার স্কোরটি সাজানো ছিল ৪টি বাউন্ডারি এবং ৩টি ছক্কায়।

আর মুমিনুল ৩৬ বলে এক ছক্কা ও পাঁচ চারের সাহায্যে করেন ৪২ রান। রাজশাহীর হয়ে খেলা জাতীয় দলের টেস্ট অধিনায়ক মুশফিকুর রহীমের ব্যাট থেকেও আসে অপরাজিত ২৫ টি রান। তিনি খেলেন ২০ বল এবং বাউন্ডারি মারেন ৩টি।

সিলেটের হয়ে নাসির হোসেন, নাবিল সামাদ ও আবুল হাসান একটি করে উইকেট নেন। এ জয়ের ফলে রাজশাহী পয়েন্ট টেবিলের তলানী থেকে এক ধাপ উপরে উঠে আসলো আর সিলেট শীর্ষে ওঠার পরিবর্তে দুই নাম্বারে থাকাটাও নড়বড়ে করে দিলো। ম্যাচ সেরার পুরস্কার জেতেন জাকির হাসান