০৩:০১ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

সৌদি আরব উগ্র সন্ত্রাসবাদের জন্মদাতা : ইরান

জাতিসংঘে নিযুক্ত ইরানের কাউন্সেলর এবং স্থায়ী প্রতিনিধি মোহাম্মদ হাসানি নেজাদ বলেছেন, সৌদি আরব উগ্র সন্ত্রাসবাদের জন্মদাতা।

শুক্রবার তিনি বলেন, “কেউ এ কথা অস্বীকার করতে পারবে না যে সৌদি আরবের সৃষ্ট সন্ত্রাসবাদের ‘বিপজ্জনক বিষ’ গোটা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়ছে।

জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের থার্ড কমিটি গত মঙ্গলবার কানাডার মাধ্যমে আনা ইরানের মানবাধিকার বিষয়ে একটি প্রস্তাব পাস করে। থার্ড কমিটিতে পাস হওয়া প্রস্তাবে ইরানকে মানবাধিকার লঙ্ঘনকারী দেশ হিসেবে আখ্যায়িত করার পাশাপাশি মত প্রকাশের স্বাধীনতা না থাকার জন্যও তেহরানকে দায়ী করা হয়।

প্রস্তাব পাসের পর জাতিসংঘে নিযুক্ত সৌদি আরবের রাষ্ট্রদূত আব্দুল্লাহ আল মোয়াল্লিমি তার ভাষায় বলেন, “ইরাক, লেবানন এবং সিরিয়ায় সাম্প্রদায়িকতা উসকে দিচ্ছে ইরান। তেহরানের বিরুদ্ধে প্রস্তাব পাস হওয়ার মাধ্যমে এটা স্পষ্ট যে, ইরানে মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনা ঘটছে।” সৌদি কর্মকর্তার বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় ইরানের কূটনীতিক হাসানি নেজাদ এসব মন্তব্য করেন।

হাসানি নেজাদ বলেন, “মানবাধিকারের সমর্থনকারী হিসেবে সৌদি আরব তার সহজাত সাম্প্রদায়িকতা এবং কুসংস্কারগুলোই উপস্থাপন করছে। তিনি আরো বলেন, সৌদি কূটনীতিকের মিথ্যাচারের মাধ্যমে এ সত্যা ধামা-চাপা দেয়া যাবে না যে, সৌদি আরব সন্ত্রাসবাদের ইন্ধন যোগানোর পাশাপাশি এর পৃষ্ঠপোষকতা দিচ্ছে।

ট্যাগ :
জনপ্রিয়

সৌদি আরব উগ্র সন্ত্রাসবাদের জন্মদাতা : ইরান

প্রকাশিত : ০৯:২০:০৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৭

জাতিসংঘে নিযুক্ত ইরানের কাউন্সেলর এবং স্থায়ী প্রতিনিধি মোহাম্মদ হাসানি নেজাদ বলেছেন, সৌদি আরব উগ্র সন্ত্রাসবাদের জন্মদাতা।

শুক্রবার তিনি বলেন, “কেউ এ কথা অস্বীকার করতে পারবে না যে সৌদি আরবের সৃষ্ট সন্ত্রাসবাদের ‘বিপজ্জনক বিষ’ গোটা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়ছে।

জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের থার্ড কমিটি গত মঙ্গলবার কানাডার মাধ্যমে আনা ইরানের মানবাধিকার বিষয়ে একটি প্রস্তাব পাস করে। থার্ড কমিটিতে পাস হওয়া প্রস্তাবে ইরানকে মানবাধিকার লঙ্ঘনকারী দেশ হিসেবে আখ্যায়িত করার পাশাপাশি মত প্রকাশের স্বাধীনতা না থাকার জন্যও তেহরানকে দায়ী করা হয়।

প্রস্তাব পাসের পর জাতিসংঘে নিযুক্ত সৌদি আরবের রাষ্ট্রদূত আব্দুল্লাহ আল মোয়াল্লিমি তার ভাষায় বলেন, “ইরাক, লেবানন এবং সিরিয়ায় সাম্প্রদায়িকতা উসকে দিচ্ছে ইরান। তেহরানের বিরুদ্ধে প্রস্তাব পাস হওয়ার মাধ্যমে এটা স্পষ্ট যে, ইরানে মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনা ঘটছে।” সৌদি কর্মকর্তার বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় ইরানের কূটনীতিক হাসানি নেজাদ এসব মন্তব্য করেন।

হাসানি নেজাদ বলেন, “মানবাধিকারের সমর্থনকারী হিসেবে সৌদি আরব তার সহজাত সাম্প্রদায়িকতা এবং কুসংস্কারগুলোই উপস্থাপন করছে। তিনি আরো বলেন, সৌদি কূটনীতিকের মিথ্যাচারের মাধ্যমে এ সত্যা ধামা-চাপা দেয়া যাবে না যে, সৌদি আরব সন্ত্রাসবাদের ইন্ধন যোগানোর পাশাপাশি এর পৃষ্ঠপোষকতা দিচ্ছে।