০২:০৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪

বিজেপি জোটকে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর অভিনন্দন

ভারতের নির্বাচনে এনডিএ জোট সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাওয়ায় অভিনন্দন জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। একইসঙ্গে ইন্ডিয়া জোটকেও অভিনন্দন জানান মন্ত্রী। তিনি বলেন, বিরোধী দল সংসদে কার্যকর ভূমিকা রাখবে।

বুধবার (৫ জুন) ঢাকায় সফররত ইন্টারন্যাশনাল রেডক্রস ফেডারেশনের প্রেসিডেন্টের সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে ব্রিফিংকালে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী একথা বলেন।

তিনি বলেন, নরেন্দ্র মোদি ও শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক অনেক উন্নতি হয়েছে। সামনের দিনে আমরা সম্পর্ক আরও উন্নত করবো।

মন্ত্রী বলেন, এই মেয়াদে নতুন সরকারের সাথে সম্পর্কের গভীরতা ও বহুমাত্রিকতায় পৌঁছাবে। চীন বাংলাদেশের উন্নয়ন সহযোগী দেশ তবে ভারতের সাথে সম্পর্ক অনন্য অবস্থানে।

ভারতের নির্বাচনের উদাহরণ দিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছন মাহমুদ বলেন, আমাদের বিরোধীদলের উচিত ছিলো ভারতের বিরোধীদলগুলোর মতো গণতন্ত্রের ধারা বজায় রাখা। যেন দেশের যেকোনো সঙ্কটে এক সঙ্গে কাজ করা যায়। কিন্তু আমাদের দেশে তা হয় না।

ভারত-বাংলাদেশের মধ্যে যেসব বিতর্ক আছে সেগুলো সামনের দিনে কেটে যাবে বলেও আশা করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। তিনি বলেন, গত ফেব্রুয়ারিতে আমার সফরে কিছু বিষয়ে আলোচনা হয়েছে, তবে কিছু বিষয়ে আলোচনার জন্য ভারতের নির্বাচন পর্যন্ত অপেক্ষা করা প্রয়োজন ছিল। আসন্ন প্রধানমন্ত্রীর সফরে সেসব বিষয়ে আলোচনা হবে।

বিজনেস বাংলাদেশ/একে

ট্যাগ :
জনপ্রিয়

বিজেপি জোটকে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর অভিনন্দন

প্রকাশিত : ০৩:১৪:৫৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ৫ জুন ২০২৪

ভারতের নির্বাচনে এনডিএ জোট সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাওয়ায় অভিনন্দন জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। একইসঙ্গে ইন্ডিয়া জোটকেও অভিনন্দন জানান মন্ত্রী। তিনি বলেন, বিরোধী দল সংসদে কার্যকর ভূমিকা রাখবে।

বুধবার (৫ জুন) ঢাকায় সফররত ইন্টারন্যাশনাল রেডক্রস ফেডারেশনের প্রেসিডেন্টের সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে ব্রিফিংকালে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী একথা বলেন।

তিনি বলেন, নরেন্দ্র মোদি ও শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক অনেক উন্নতি হয়েছে। সামনের দিনে আমরা সম্পর্ক আরও উন্নত করবো।

মন্ত্রী বলেন, এই মেয়াদে নতুন সরকারের সাথে সম্পর্কের গভীরতা ও বহুমাত্রিকতায় পৌঁছাবে। চীন বাংলাদেশের উন্নয়ন সহযোগী দেশ তবে ভারতের সাথে সম্পর্ক অনন্য অবস্থানে।

ভারতের নির্বাচনের উদাহরণ দিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছন মাহমুদ বলেন, আমাদের বিরোধীদলের উচিত ছিলো ভারতের বিরোধীদলগুলোর মতো গণতন্ত্রের ধারা বজায় রাখা। যেন দেশের যেকোনো সঙ্কটে এক সঙ্গে কাজ করা যায়। কিন্তু আমাদের দেশে তা হয় না।

ভারত-বাংলাদেশের মধ্যে যেসব বিতর্ক আছে সেগুলো সামনের দিনে কেটে যাবে বলেও আশা করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। তিনি বলেন, গত ফেব্রুয়ারিতে আমার সফরে কিছু বিষয়ে আলোচনা হয়েছে, তবে কিছু বিষয়ে আলোচনার জন্য ভারতের নির্বাচন পর্যন্ত অপেক্ষা করা প্রয়োজন ছিল। আসন্ন প্রধানমন্ত্রীর সফরে সেসব বিষয়ে আলোচনা হবে।

বিজনেস বাংলাদেশ/একে