০২:২৩ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪

বীরাঙ্গনা স্বীকৃতি পেয়েছেন ৫০৪ জন: মুক্তিযুদ্ধমন্ত্রী

ছবি সংগৃহীত

জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের সুপারিশের আলোকে ৫০৪ জনকে নারী মুক্তিযোদ্ধা (বীরাঙ্গনা) হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক।

বৃহস্পতিবার (১৩ জুন) জাতীয় সংসদের প্রশ্নোত্তর পর্বে স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য শামীম শাহনেওয়াজের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা জানান।

স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে প্রশ্নোত্তর টেবিলে উত্থাপন করা হয়।মুক্তিযুদ্ধমন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেন, মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে মুক্তিযুদ্ধে সহায়তাকারী সব নারীকে মুক্তিযোদ্ধা হিসাবে স্বীকৃতি দেওয়ার কার্যক্রম চলমান। জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের সুপারিশের আলোকে ইতোমধ্যে নারী মুক্তিযোদ্ধা (বীরাঙ্গনা) হিসেবে ৫০৪ জনকে স্বীকৃতি দেওয়া হয়েছে। তাদের নাম গেজেটে প্রকাশিত হয়েছে।

সরকারদলীয় সংসদ সৈয়দা জাকিয়া নূরের প্রশ্নের জবাবে আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা যাদের নাম এমআইএস ও সমন্বিত তালিকায় রয়েছে, তাদের অনুকূলে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয় থেকে এক লাখ ৯৩ হাজার ৭৮০টি ডিজিটাল সনদ এবং জীবিত বীর মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য এক লাখ ৮০৫ টি স্মার্ট আইডি কার্ড বিতরণ করা হয়েছে। এর মধ্যে প্রবাসে অবস্থানকারী বীর মুক্তিযোদ্ধারাও রয়েছেন।

মন্ত্রী আরও বলেন, এমআইএস ও সমন্বিত তালিকায় যে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের নাম রয়েছে, কিন্তু এ পর্যন্ত ডিজিটাল সনদ ও স্মার্ট আইডি কার্ড পাননি, তাদের অনুকূলে ডিজিটাল সনদ ও স্মার্ট আইডি কার্ড প্রস্তুত ও প্রদানের কার্যক্রম চলমান আছে।

বিজনেস বাংলাদেশ/DS

ট্যাগ :

মেঘনা ধনাগোদা সেচ প্রকল্প বেড়ীবাঁধ সড়কে আবারও ছোট বড় গর্তের সৃষ্টি

বীরাঙ্গনা স্বীকৃতি পেয়েছেন ৫০৪ জন: মুক্তিযুদ্ধমন্ত্রী

প্রকাশিত : ০৬:৫০:৪৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪

জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের সুপারিশের আলোকে ৫০৪ জনকে নারী মুক্তিযোদ্ধা (বীরাঙ্গনা) হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক।

বৃহস্পতিবার (১৩ জুন) জাতীয় সংসদের প্রশ্নোত্তর পর্বে স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য শামীম শাহনেওয়াজের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা জানান।

স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে প্রশ্নোত্তর টেবিলে উত্থাপন করা হয়।মুক্তিযুদ্ধমন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেন, মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে মুক্তিযুদ্ধে সহায়তাকারী সব নারীকে মুক্তিযোদ্ধা হিসাবে স্বীকৃতি দেওয়ার কার্যক্রম চলমান। জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের সুপারিশের আলোকে ইতোমধ্যে নারী মুক্তিযোদ্ধা (বীরাঙ্গনা) হিসেবে ৫০৪ জনকে স্বীকৃতি দেওয়া হয়েছে। তাদের নাম গেজেটে প্রকাশিত হয়েছে।

সরকারদলীয় সংসদ সৈয়দা জাকিয়া নূরের প্রশ্নের জবাবে আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা যাদের নাম এমআইএস ও সমন্বিত তালিকায় রয়েছে, তাদের অনুকূলে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয় থেকে এক লাখ ৯৩ হাজার ৭৮০টি ডিজিটাল সনদ এবং জীবিত বীর মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য এক লাখ ৮০৫ টি স্মার্ট আইডি কার্ড বিতরণ করা হয়েছে। এর মধ্যে প্রবাসে অবস্থানকারী বীর মুক্তিযোদ্ধারাও রয়েছেন।

মন্ত্রী আরও বলেন, এমআইএস ও সমন্বিত তালিকায় যে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের নাম রয়েছে, কিন্তু এ পর্যন্ত ডিজিটাল সনদ ও স্মার্ট আইডি কার্ড পাননি, তাদের অনুকূলে ডিজিটাল সনদ ও স্মার্ট আইডি কার্ড প্রস্তুত ও প্রদানের কার্যক্রম চলমান আছে।

বিজনেস বাংলাদেশ/DS